ফ্ল্যাটে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের লাশ, পাশে সুইসাইড নোট!


Published: 2018-05-15 21:31:53 BdST, Updated: 2018-12-14 12:16:55 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের পাশে একটি সুইসাইড নোটও রয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। তবে পরিবারের সদস্যদের দাবি ওই শিক্ষকের মৃত্যু রহস্যজনক। দেবাশীস মণ্ডল নামে নিহত ওই শিক্ষক পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি) ২০০৯-২০১০ সেশনে মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। তিনি কুষ্টিয়ার রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগের লেকচারার ছিলেন।

সম্প্রতি পবিপ্রবির মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগে লেকচারার নিয়োগ পরীক্ষাতেও তিনি অংশ নিয়েছেন। ভাইভাও তার ভালো হয়েছে। কিন্তু এরই মাঝে তার এমন মৃত্যু নিয়ে রহস্য তৈরি হয়েছে। কি কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন এনিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। গত ১৪ মে কুষ্টিয়ার একটি ফ্ল্যাটে ওই শিক্ষকের লাশ পাওয়া গেছে।

ওই ফ্ল্যাটে বসবাসকারী কুষ্টিয়ার রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ অনুষদের শিক্ষক আবদুল মান্নান জানান, নিহত দেবাশীস তার নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাইভা দিয়ে কুষ্টিয়ায় এসে খুব চিন্তিত ছিলেন। ঘটনার দিন সকাল থেকে ফোনে কারও সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করছিলেন। এ সময় তাকে খুব বিমর্ষ দেখাচ্ছিল। আমরা বারবার তাকে জিজ্ঞাস করেও কোনো উত্তর পাইনি। দুপুর ৩টা ২০ মিনিটে তিনি অফিস ত্যাগ করে বাসায় ফেরেন। কিছুক্ষণ পর আমি ও অন্য আরেক রুমমেটও বাসায় যাই। গিয়ে দেখি ফ্ল্যাটের মূল দরজা ভেতর থেকে আটকানো। অনেক ধাক্কাধাক্কি করে কোনো সাড়া না পেয়ে আমরা বাড়িওয়ালাকে খবর দিই। পাশের বাসার ৩য় তলার সানশেড থেকে উঁকি দিয়ে তাকে বসা দেখতে পেয়ে দরজা খুলতে অনুরোধ করি। তিনি খুলবেন বললেও আর খুলেননি। একপর্যায়ে আমরা দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তাকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখি। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। কুষ্টিয়া সদর থানা সূত্র বলছে, দেবাশীস একটি চিরকুট রেখে গিয়েছেন। তবে সেখানে কি লিখা আছে তা জানা যায়নি।

ঢাকা, ১৬ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।