এরদোয়ানকে থামাতে যুদ্ধ কৌশলে ম্যাক্রোঁ


Published: 2020-08-14 19:02:04 BdST, Updated: 2020-09-23 05:58:22 BdST

ইন্টারন্যাশনাল লাইভ: ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ সম্প্রতি পূর্ব-ভূমধ্যসাগরীয় দেশগুলোর সঙ্গে বেশ সুসম্পর্ক গড়ে তুলছেন। যা চোখে পড়ার মতো। লেবাননবাসী যখন ধ্বংস্তূপে দাঁড়িয়ে তখনই ত্রাতার রুপ ধরে বৈরুতে পা রাখলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়ের ম্যাক্রোঁ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শঙ্কা জানিয়ে বলেছিলেন, ম্যাক্রোঁ শিগগিরই পূর্ব-ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের বেশ কয়েকটি দেশের মধ্যকার ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। যা সত্যিকার অর্থে যুদ্ধের দিকে ঠেলে দিবে। ট্রাম্প এমন মন্তব্য কোন উদ্দেশ্য নিয়ে করেছিলেন। সেটি তিনিই ভাল বলতে পারবেন।

গত ৪ আগস্ট, লেবাননের রাজধানী বৈরুতে এক গুদামে স্মরণকালের শক্তিশালী বিস্ফোরণে ২২০ জনেরও বেশি মানুসের প্রাণ ঝরে পড়েছে। নিখোঁজের সংখ্যাটাও কিন্তু কম নয়। আহত হয়ে হাসপাতালে বহু মানুষ।

জানা গেছে, বৈরুত বন্দরে ২ হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট নিরাপদ ব্যবস্থা না নিয়ে যেভাবে মজুত রাখা হয়েছিল তাতে আগুন ধরে ঐ ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটেছে। বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট সরকার বৈরুতে মজুত করে রাখতে দিয়েছিল। এ কথা জানার পর লেবাননবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভ জন্ম নেয়। যা সরকারবিরোধী আন্দোলনে রুপ নিল।

পূর্ব-ভূমাধ্যসাগরের রাজনীতির দিকে তাকালে দেখা যাবে এই অঞ্চলে একটি বিপর্যয় সৃষ্টি হচ্ছে লিবিয়া ও তুরস্কের। যে চুক্তি রয়েছে ঠিক সমান আরেকটি চুক্তি গ্রিস-মিশর সমুদ্র চুক্তি। দু'দেশের একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চল সংলগ্ন রয়েছে এবং তারা প্রায় এক বছর আগে জাতিসংঘের সঙ্গে তাদের চুক্তির বিষয়বস্তু নিবন্ধনও করেন।

তুরস্ক এবং লিবিয়া চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে সক্ষম হওয়ার কারণে হল, তাদের মহাদেশীয় বিভিন্ন বিষয়াদী একে অপরকে আকর্ষণ করে। তুরস্কের আনাতোলিয়ার উপদ্বীপের নিজস্ব কোনও মহাদেশীয় শেল্ফ না থাকলে গ্রিস এবং মিশরের সমান চুক্তি হতে পারে।

তুরস্ক তিনটি সমুদ্র দ্বারা বেষ্টিত। তাদের ৭ লাখ ৭০ হাজার বর্গ কিলোমিটার ভূখণ্ড এবং ৯ হাজার বর্গ কিলোমিটার সামুদ্রিক এলাকা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের তথ্য অনুসারে, আঙ্কারার ২ লাখ ৬২ হাজার বর্গকিলোমিটার একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চল রয়েছে।

মিশরের আধা-সরকারী সংবাদপত্র আল-আহরাম এবং গ্রীক সিটি টাইমস ওয়েবসাইট (গ্রীকসিটিটাইমস ডটকম) দ্বারা প্রকাশিত মানচিত্রটি যদি আপনি দেখেন, তবে আনাতোলিয়ান মহাদেশীয় সাগরে থেকে খুব দ্রুত আধুনিক যন্ত্রব্যবহার করে মৎস আহরণ করতে পারে এরদোয়ান সরকার।

এজন্য তুরস্ক আশা করেছিল যে এথেন্স শিগগিরই তুর্কি রাজধানী আঙ্কারায় এসে তাদের আইনী এবং রাজনৈতিক বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করবে। গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী কিরিয়াকোস মিতসোটাকিস এতটাই নিশ্চিত যে, কোনও চুক্তি হবে না বলে মনে হয়েছিল, তবে বিষয়টি নিয়ে পরবর্তীতে তিনি হেগের আন্তর্জাতিক আদালত (আইসিজে) এর দিকে যেতে বসেন।


ঢাকা, ১৪ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।