ভারত লকডাউন, দরিদ্রদের কাছে ক্ষমা চাইলেন মোদি


Published: 2020-03-29 18:35:54 BdST, Updated: 2020-05-31 12:01:21 BdST

লাইভ ডেস্কঃ প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের জন্য টানা ২১ দিনের লকডাউনে রয়েছে গোটা ভারত। এর ফলে বন্ধ রয়েছে ব্যবসা ও কাজকর্ম। প্রতিদিনই অর্থনৈতিক ও মানবিক ক্ষতির পরিমাণ বেড়েই চলেছে।

যথাযথ পরিকল্পনা গ্রহণ না করেই হঠাৎ করেই এমন লকডাউন জারি করাতে সমালোচনার মুখে পড়েছে ভারত সরকার। এমন পরিস্থিতিতে দেশের দরিদ্র শ্রেণির মানুষদের কাছে ক্ষমা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সংবাদ দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সংবাদে উল্লেখ করা হয়, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে গত মঙ্গলবার ৩ সপ্তাহের জন্য গোটা ভারত লকডাউনের ঘোষণা দেন মোদি। আর এই লকডাউনের ফলে ব্যাপক আকারে ক্ষতির শিকার হয়েছেন দেশটির অসংখ্য দরিদ্র মানুষ। অনেকেই খাবারের অভাবেও ভুগছেন।

সেই সাথে সকল প্রকার যানবাহন বন্ধ হওয়ার কারণে অনেক অভিবাসী শ্রমিকদের শত শত কিলোমিটার পায়ে হেঁটেই কাজে যেতে হচ্ছে। রবিবার রেডিওতে দেয়া এক বক্তব্যে মোদি জানান, আমি প্রথমে আমার সকল দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইছি।

দরিদ্ররা নিশ্চিতভাবেই ভাবছেন, এটা কেমন প্রধানমন্ত্রী, যিনি আমাদের বিপদের দিকে ঠেলে দিয়েছেন। তিনি জনগণকে পরিস্থিতি বোঝার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এছাড়া আর কোনো অপশন নেই। এসব পদক্ষেপ করোনার বিরুদ্ধে ভারতকে জয়ের লক্ষে পৌঁছে দিবে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার মোদি সরকার ২ হাজার ২৬০ কোটি ডলারের সহায়তা বিলের ঘোষণা করেছেন। এই বিলের আওতায় দরিদ্রদের কাছে নগদ অর্থ ও খাদ্য পাঠানোর কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তবে ভবিষ্যতে এর বাস্তবায়ন নিয়ে কোনো প্রকার স্পষ্ট তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

ঢাকা, ২৯ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।