স্বর্ণখচিত হোটেলে থাকবেন ট্রাম্প-কিম (ভিডিও)


Published: 2018-06-06 21:50:59 BdST, Updated: 2018-06-20 17:11:04 BdST

লাইভ ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের ঐতিহাসিক সম্মেলনের সব ব্যস্ত কর্মযজ্ঞ পরিচালিত হবে সিঙ্গাপুরের তিনটি হোটেলে। ১২ জুনের ওই সম্মেলনের আগে মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপের বিলাসবহুল ক্যাপেল্লা হোটেলে এ দুই প্রেসিডেন্টের সাক্ষাত হবে বলে আশা করা হচ্ছে ।

এদিকে সম্প্রতি সিঙ্গাপুর সরকার অবকাশযাপন দ্বীপ হিসেবে পরিচিত সেন্তোসাকে দ্বীপকে ‘স্পেশাল ইভেন্ট এরিয়া’ হিসেবে ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।


সিঙ্গাপুরে পৌঁছানোর পর অর্কার্ড রোডের শাংগ্রি-লা হোটেলে ট্রাম্প এবং সেন্ট রেজিস হোটেলে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন অবস্থান করতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঘনিয়ে আসছে ১২ জুন। চলুন জেনে যাক যে তিন হোটেলে চলবে ব্যস্ত কর্মযজ্ঞ :

অর্কার্ড রোডের পাশে ১৫ একর জায়গা ঘিরে অবস্থিত বিলাবহুল এই হোটেল। রাষ্ট্রের প্রধান ও বিশিষ্ট অতিথিদের জন্য ২৬টি স্যুটস-সহ হোটেলটিতে রয়েছে ৭৪৭টি কক্ষ। আগামী ১০ থেকে ১৪ জুন পর্যন্ত হোটেল এলাকাকে স্পেশাল ইভেন্ট এরিয়া হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে সিঙ্গাপুর সরকার।

এর অর্থ হচ্ছে এই এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা পেরিয়ে জনসাধারণ এবং যানবাহন প্রবেশ করতে পারবে। এই এলাকায় প্রবেশের আগে এবং পরে তল্লাশি ও যেকোনো স্থানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তল্লাশির মুখে পড়তে হবে।

এর আগে অনেক পর্যবেক্ষক বলেছিলেন, শাংগ্রি-লা হোটেল এলাকা ঘিরে প্রজ্ঞাপন জারি করায় হোটেলটিতে কিম-ট্রাম্পের বৈঠকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তুলেছিল। কিন্তু সেই সম্ভাবনা নাকচ হয়ে যায় মঙ্গলবার।

শাংগ্রি-লা হোটেল

 

ওইদিন মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউস এক বিবৃতিতে ক্যাপেলা হোটেলে ঐতিহাসিক ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে বলে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়। তবে এখন সম্ভবত বিশ্বের চিরবৈরী এই দুই রাষ্ট্রপ্রধানের একজন এই হোটেলে অবস্থান করবেন।

হোটেলটির প্রেসিডেন্ট স্যুটে; যা ভ্যালি উইং শাংগ্রি-লা স্যুট নামে পরিচত ট্রাম্প তার সিঙ্গাপুর সফরের সময় অবস্থান করতে পারেন বলে বিশেষজ্ঞরা ধারণা করেছেন। হোটেলটিতে গোপন প্রবেশদ্বার ও বহির্গমনের ব্যবস্থা রয়েছে।

সাবেক দুই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশ সিঙ্গাপুরে সফরে গিয়ে এই হোটেলটিতে অবস্থান করেছিলেন। সিঙ্গাপুরের প্রধান শপিং বেল্ট থেকে দূরে আবাসিক এলাকায় অবস্থিত এই হোটেল। অতিথিদের গোপনীয়তার নিশ্চয়তা রয়েছে সেখানে।

অতীতে এই হোটেলে হাই প্রোফাইল বেশ কিছু বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০১৫ সালে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট মা ইং-জিও হোটেলটিতে বৈঠকে বসেন। প্রত্যেক বছর বিশ্বের কয়েক ডজন প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ হোটেলটিতে মিলিত হন।

শাংগ্রি-লা হোটেলের পাশাপাশি দ্য সেন্ট রেজিসকেও স্পেশাল ইভেন্ট এরিয়া হিসেবে ঘোষণা করেছে সিঙ্গাপুর। কিম জং উন ফুলারটন হোটেলে অবস্থান করতে পারে বলে এর আগে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। এই হোটেল এলাকাকে প্রজ্ঞাপনের আওতায় আনা হয়নি, ফলে সেই গুঞ্জন এখন বাতাসে মিলিয়ে গেছে।

Caption

 

তবে শাংগ্রি-লা হোটেল থেকে মাত্র ৯ মিনিটের হাঁটা পথ দূরত্বে অবস্থিত বিলাসবহুল দ্য সেন্ট রেজিস হোটেলে কিম অবস্থান করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট মা ইং-জিওর সঙ্গে ২০১৫ সালে শি জিনপিংয়ের ঐতিহাসিক বৈঠকের সময় এই হোটেলে অবস্থান করে চীনা প্রতিনিধি দল।

তবে অর্কার্ড রোড বেল্ট থেকে একটু দূরের ট্যাঙ্গলিন রোডে অবস্থিত এই হোটেলের গোপনীয়তা শাংগ্রি-লা হোটেলের মতো কড়াকড়ি নয়। হোটেলটি ২০ তলায় বিলাসবহুল প্রেসিডেন্ট স্যুটসহ প্রায় ২৯৯টি কক্ষ রয়েছে। স্যুটের প্রত্যেক কক্ষে রয়েছে স্বর্ণখচিত রেখা।


সেন্তোসা দ্বীপের বিলাসবহুল এই হোটেলকে ঐতিহাসিক ট্রাম্প-কিমের বৈঠকের স্থান হিসেবে মঙ্গলবার সকালের দিকে (বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল) ঘোষণা দিয়েছেন হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স।

আগামী ১০ থেকে ১৪ জনু পর্যন্ত এই পুরোদ্বীপের পাশাপাশি দক্ষিণ-পশ্চিমের সমুদ্র সৈকতকে স্পেশাল ইভেন্ট এরিয়া হিসেবে ঘোষণা দিয়ে সরকারি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সিঙ্গাপুর সরকার।

হোয়াইট হাউসের ডেপুটি চিফ অব স্টাফ জো হ্যাজিনের নেতৃত্বে একটি মার্কিন প্রতিনিধি দল আগেই এই হোটেলে অবস্থান নেবেন। এর আগে এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্মেলন পরিকল্পনা করতে ইতোমধ্যে এ হোটেলটিতে অবস্থান নিয়েছে মার্কিন প্রতিনিধি দল।

ঐতিহাসিক এ সম্মেলনের তারিখ নিশ্চিত হওয়ার আগে গত ৩১ মে ক্যাপেল্লা হোটেলে কয়েক ঘণ্টা কাটাতে দেখা যায় কিম জং উনের চিফ অব স্টাফ ও উত্তর কোরিয়ার সাবেক গোয়েন্দা প্রধান কিম চ্যাং সনকে।

 

ভিডিও: 


ঢাকা, ০৬ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।