টাইগারদের জয়ের জন্য চাই ৩৮২ রান


Published: 2019-06-20 20:18:42 BdST, Updated: 2019-12-16 05:14:19 BdST

স্পোর্টস লাইভ: টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বেশ সতর্কতার সঙ্গে শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। দুই ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ আর ডেভিড ওয়ার্নার বাংলাদেশি বোলারদের দেখেশুনে খেলছিলেন। সেঞ্চুরি জুটিও গড়েন তারা।

সৌম্য সরকার ৩ উইকেট আর মোস্তাফিজুর রহমান ১ উইকেট তুলে নেওয়ায় অজিদের রানের পাহাড় ৪০০ রানের হিমালয় ছুঁতে পারেনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সামনে ৩৮২ রানের টার্গেট ছুড়ে দিয়েছে অজিরা।

২১তম ওভারে পার্টটাইমার সৌম্য সরকারের হাতে বল তুলে দেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। অধিনায়কের এমন বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত কাজে লেগে যায় সঙ্গে সঙ্গে। নিজের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে এসে অ্যারন ফিঞ্চকে শর্ট থার্ড ম্যানে রুবেল হোসেনের ক্যাচ বানান সৌম্য। ফিঞ্চ ৫১ বলে করেন ৫৩ রান। ১২১ রানের ওপেনিং জুটি ভাঙায় স্বস্তি ফিরে বাংলাদেশ শিবিরে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ব্যাট হাতে রীতিমত ঝড় তুলেছেন ওয়ার্নার। ১১২ বলে চলতি বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় ও ১৬তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়ার পর আরও আগ্রাসী হয়ে উঠেন এই বাঁহাতি। চার-ছক্কার বন্যা বইয়ে দিয়ে ছাড়িয়ে যান চলতি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ইনিংস খেলে জেসন রয়ের গড়া কীর্তি।

ইংলিশ ওপেনারের ১৫৩ ছিল এতদিন সর্বোচ্চ, যা ছাড়িয়ে ডাবল সেঞ্চুরির দিকে ধাবিত হচ্ছিলেন ওয়ার্নার। তবে তার ১৪৪ বলে ১৬৬ রানের ঝড় থামান সৌম্য। ১৪ চার ও ৫ ছক্কায় সাজানো এই ইনিংসটি অবশ্য সাকিব আল হাসানের কীর্তিও ম্লান করে দিয়েছে। চলতি বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক (৪৪৭ রান) এখন অজি ওপেনার।

দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পরও ব্যাট হাতে বাংলাদেশের বোলারদের কচুকাটা করছিলেন অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। তবে ব্যক্তিগত ১৬৬ রানের মাথায় সৌম্য সরকারের বলে রুবেল হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নিয়েছেন। কাকতালীয় ব্যাপার হলো, এর আগে অজিদের প্রথম উইকেটও (ফিঞ্চও) তুলে নিয়েছিলেন সৌম্য, আর ক্যাচ নিয়েছিলেন রুবেল।

৫১ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৫৩ রান করে সৌম্য সরকারের বলে রুবেল হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন ফিঞ্চ। আউট হওয়ার আগে ওয়ার্নারের সঙ্গে তার জুটিতে এসেছে ১২১ রান। এরপর উসমান খাজা আর ওয়ার্নারের জুটিতে আসে ১৯২ রান। ওয়ার্নারের বিদায়ের পর ক্রিজে এসে মাত্র ১০ বলে ৩২ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন গ্ল্যান ম্যাক্সওয়েল।

ম্যাক্সওয়েল বিদায় নিলেও ক্রিজে বিপদ হয়ে ছিলেন খাজা। সৌম্য সরকারের করা ইনিংসের ৪৭তম ওভারের পঞ্চম বলে অর্থাৎ কিন্তু ম্যাক্সওয়েল বিদায় নেওয়ার ঠিক ২ বল পরেই মুশফিকুর রহিমের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ৭২ বলে ৮৯ রান করা খাজা। এরপর স্টিভ স্মিথকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে দ্রুত বিদায় করেন মোস্তাফিজুর রহমান।

এক সময় ৩১৩ রানে ২ উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়া ৩৫৪ রান তুলতেই হারায় আরও ৩ উইকেট। বিশেষ করে ৩৫২ রানে ম্যাক্সওয়েলের বিদায়ের পর মাত্র ২ রান যোগ করতেই আরও ২ উইকেট হারায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তবে শেষ পর্যন্ত মোস্তাফিজের করা শেষ ওভারে ১৩ রান নিয়ে বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছে অজিরা। ২০১৫ বিশ্বকাপে আফগানদের বিপক্ষে ৪১৭ রান বিশ্বকাপে তাদের সেরা স্কোর, যা আবার বিশ্বকাপ ইতিহাসেরও সর্বোচ্চ।

বিশ্বকাপের ২৬তম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টস হেরে ফিল্ডিং পেয়েছে বাংলাদেশ। সেমিফাইনালের পথ সহজ করতে হলে এই ম্যাচে জয় ছাড়া কিছুই ভাবার নেই মাশরাফির দলের।

 


ঢাকা, ২০ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।