আবারও বিশ্বে কোভিড-১৯ এর আক্রমন লাফিয়ে বাড়ছে


Published: 2020-07-11 12:10:32 BdST, Updated: 2020-08-07 01:24:03 BdST

লাইভ ডেস্ক: কোভিড-১৯। লন্ড ভন্ড পৃথিবী। তছনছ সব আয়োজন। কোন গবেষকেরই গবেষণার ফলাফল ধারে ঠিকছে না। তারা যা ভাবছে তার বিপরীতে করোনাভাইসের আক্রমন ততই যেন বাড়ছে। একেক সময় একেক রুপ নিচ্ছে এই প্রাণঘাতি মহামারি ভাইরাস। অন্যদিকে দেশে দেশে লকডাউন আর আইসোলেশন কমে যাচ্ছে। ভাবছে এই তো গেল গেল ভাব। কিন্তু কি তাই? এদিকে রেকর্ড সংখ্যায় ভাইরাসটি সংক্রমণ ঘটিয়ে চলেছে মানুষের দেহে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, শুক্রবার নতুন করে বিশ্বজুড়ে একদিনে সর্বোচ্চ ২ লাখ ২৮ হাজার ১০২ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। যা রীতিমত অনেকটাই ভাবনার বিষয়।

এবার গবেষকরা বলছেন এই আক্রান্ত বৃদ্ধির কারণ হলো বাতাসেও ছড়াচ্ছে এই ভাইরাস। করোনাভাইরাস বাতাসের মাধ্যমে ছড়ানোর ‘প্রমাণ’ যে আসতে শুরু করেছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অবশেষে তা স্বীকার করেছে। বাতাসের মাধ্যমেও করোনাভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ বাড়তে থাকার মধ্যেই শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এ মাইলফলক ছাড়াল। এনিয়ে নতুন ভাবনায় ফেলেছে গবেষকদের।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে জুলাই মাসের শুরু থেকেই সংক্রমণে হঠাৎ দ্রুত ঊর্ধ্বগতি শুরু হয়েছে। হু হু আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় সব মহলে নতুন করে আরেকবার অনেকটা আতঙ্ক বাড়ছে। জুলাইয়ের প্রথম ১১ দিনের মধ্যে সাতদিনেই দৈনিক নতুন রোগী শনাক্তের হার ২ লাখ ছাড়িয়েছে। বাকি চারদিন ছিল ২ কিছুটা নিচে। তবে গড় হিসাব করলে প্রতিদিন আক্রান্ত হয়েছে অন্তত দুই লাখ মানুষ। এ নিয়ে গবেষকদের নতুন করে ভাবনায় ফেলেছে। অথচ জুলাই মাসেও করোনার গড় সংক্রমণের হার ছিল দেড় লাখের নিচে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতির দিনে দিনে অবনতি ঘটছে। আরও দ্রুত বিস্তার ঘটাচ্ছে মহামারি এই ভাইরাস। তাই বিশ্বের সরকারগুলোকে করোনা প্রতিরোধে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি। তাদের ভাষ্য গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে যে সোয়া দুই লাখের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে কয়েকটি দেশে। এরমধ্যে রয়েছে শীর্ষ সংক্রমিত তিন দেশ যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল এবং ভারত। তালিকায় আরেকটি নাম হলো দক্ষিণ আফ্রিকা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, এতদিন পর্যন্ত সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড হয়েছিল গত ৪ জুলাই। ওইদিন বিশ্বজুড়ে সর্বোচ্চ ২ লাখ ১২ হাজার ৩২৬ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। এরপর তা আরও বাড়ছেই। তবে দৈনিক মৃত্যুর গড় হার পাঁচ হাজারের নিচে রয়েছে। বিশ্বজুড়ে সংক্রমণের সঙ্গে তুলনায় মৃত্যু অতটা না বাড়লেও মৃত্যুর সংখ্যা একটু একটু করে বাড়তির দিকে যাচ্ছে বলে মনে হচ্ছে।

তারা বলছেন, গত জুনেও দৈনিক গড়ে দেড় লাখের কম রোগী শনাক্ত হয়েছে, মারা গেছেন সাড়ে ৪ হাজারের কিছু বেশি। চলতি মাসে তা যে বাড়তে শুরু করেছে প্রথম দশ দিনের হিসাবেই তা স্পষ্ট। বিশ্বের দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত। প্রথমদিকে বেশ ধীরেই সংক্রমণ শুরু হয়েছিল। তবে মাত্র ৬ মাসের ব্যবধানে বিশ্বের বহু দেশকে পেছনে ফেলে সংক্রমণের তালিকায় ভারতের অবস্থান এখন তিন নম্বরে। সেখানে রীতিমত উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা রয়েছে।

ঢাকা, ১১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।