বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের যে কারণে কালিজিরা খাওয়া উচিত


Published: 2019-01-12 02:33:42 BdST, Updated: 2019-09-17 21:16:34 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত কালিজিরা খাওয়া উচিৎ। এই বয়সেই যৌবনের পূর্ণতা পায়। যৌবন ধরে রাখার পাশাপাশি কালিজিরা মেধা বিকাশেও সহায়তা করে। তাই বিশেষজ্ঞরা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের কালিজিরা খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কালিজিরা রোগ নিরাময়ের মহৌষধ। জ্বর, কফ, গায়ের ব্যথা কিংবা ডায়াবেটিস, সকল ক্ষেত্রেই কালিজিরা যথেষ্ট উপকারি বন্ধু। কাজ করার শক্তিকে কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়ার পাশাপাশি তারুণ্য ধরে রাখতেও ভূমিকা রাখে এটি। কালিজিরার তেলে ১০০টিরও বেশি উপযোগী উপাদান আছে। এতে আছে প্রায় ২১ শতাংশ আমিষ, ৩৮ শতাংশ শর্করা এবং ৩৫ শতাংশ ভেষজ তেল ও চর্বি। চলুন জেনে নেয়া যাক কালিজিরা কেন নিয়মিত খাবেন :

>>> কালিজিরা কৃমি দূর করার জন্য কাজ করে। তারুণ্য ধরে রাখে দীর্ঘকাল।

>>> কালিজিরায় রয়েছে ক্ষুধা বাড়ানোর উপাদান। পেটের যাবতীয় রোগ-জীবাণু ও গ্যাস দূর করে ক্ষুধা বাড়ায়। যারা মোটা হতে চান, তাদের জন্য কালিজিরা উপকারী পথ্য।

>>> মেধার বিকাশের জন্য কালিজিরার তেল কাজ করে দ্বিগুণ হারে। কালিজিরার তেলের উপকার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

>>> ইনসুলিন রোধ হ্রাস করে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে।

>>> যৌনক্ষমতা বৃদ্ধি করে কালোজিরা। প্রতিদিন খাবারের সঙ্গে কালোজিরা খেলে পুরুষের স্পার্ম সংখ্যা বৃদ্ধি পায়। এটি পুরুষত্বহীনতা থেকে মুক্তির সম্ভাবনাও তৈরি করে।

>>> কালিজিরায় থাকা অ্যান্টিমাইক্রোরিয়াল এজেন্ট শরীরের রোগ-জীবাণু ধ্বংস করে। এই উপাদানের জন্য শরীরে সহজে ঘা, ফোড়া, সংক্রামক রোগ হতে বাধা দেয়।

>>> কালিজিরার তেলের উপকার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

>>> কাশি ও হাঁপানির উপশম, স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি, হৃদরোগের আশঙ্কা হ্রাস করে।

>>> চুল পড়া কমাতে ও ত্বকের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে কালিজিরার তেলের তুলনা হয় না।

>>> যাদের শরীরে পানি জমা বা হাত-পা ফুলে যাওয়ার সমস্যা রয়েছে, তাদের জন্য এই তেল বেশ উপকারি।

>>> দাঁতে ব্যথা হলে কুসুম গরম পানিতে কালিজিরা দিয়ে কুলি করলে ব্যথা কমে। জিহ্বা, তালু, দাঁতের মাড়ির জীবাণু মরে।


ঢাকা, ১২ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।