যে ১৪ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে দায় নেবে না ইউজিসি-মন্ত্রণালয়!


Published: 2018-05-24 09:28:03 BdST, Updated: 2018-08-15 07:51:42 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : অবশেষে ১৪ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আইনের যথাযত প্রয়োগ না হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ওই সতর্কতা জারি করেছে। এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলে শিক্ষার্থীদের কোন দায় নেবে না ইউজিসি কিংবা শিক্ষা মন্ত্রণালয় এমনটাও জানিয়ে দেয়া হয়েছে। সতর্কতা জারি করা ওই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলছে নানা সংকট। এর মধ্যে কয়েকটি সরকার বন্ধ করে দিয়েছে, কয়েকটির মালিকানা নিয়ে আদালতে মামলা চলছে, কয়েকটির ক্যাম্পাস আবার সরকার অনুমোদিত নয় এবং একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি নেই। তাই এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে সতর্কতা জারি করে গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ইউজিসি। এ ছাড়া বাংলাদেশে এখনও কোনো বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা, ক্যাম্পাস বা স্টাডি সেন্টার স্থাপন ও পরিচালনার অনুমতি দেওয়া হয়নি বলেও জানানো হয়েছে। তাই ইউজিসি কোনো বিদেশি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়ে প্রতারণার শিকার না হতে শিক্ষার্থীদের সতর্ক করেছে।

সতর্কতা জারি করে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- ইবাইস ইউনিভার্সিটি, আমেরিকা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা, সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, গণবিশ্ববিদ্যালয়, দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়, কুইন্স ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, দি পিপলস ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়া, অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, কুমিল্লার ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি।

ইউজিসি জানিয়েছে, নতুন অনুমোদন পাওয়া বেশকিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে এখনও শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়নি।এগুলো হলো- রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়, রূপায়ন একেএম শামসুজ্জোহা বিশ্ববিদ্যালয়, আনোয়ার খান মডার্ন ইউনিভার্সিটি, জেড এনআরএফ ইউনিভার্সিটি অব ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সেস, আহ্ছানিয়া মিশন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় রাজশাহী, শাহ মখদুম ম্যানেজমেন্ট ইউনিভার্সিটি রাজশাহী, খুলনা খান বাহাদুর আহ্ছানউল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ও বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে বর্তমানে ১০১টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকারি অনুমোদন আছে। এর মধ্যে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে ৯১টি বিশ্ববিদ্যালয়ে। সম্প্রতি এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। এই শিক্ষার্থীরাই উচ্চশিক্ষায় ভর্তি হবে। তাই শিক্ষার্থীদের বেসরকারি ১৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন। এতে বলা হয়েছে, কেউ অনুমোদনবিহীন কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বা অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয়ের অননুমোদিত ক্যাম্পাস বা অননুমোদিত কোনো প্রোগ্রাম বা কোর্সে ভর্তি হলে তার দায়-দায়িত্ব শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা ইউজিসি নেবে না।

এ বিষয়ে ইউজিসি চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেন, আইন অমান্যকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে কেউ ভর্তি হয়ে প্রতারিত হোক আমরা তা চাই না। বিশ্ববিদ্যালয়ের অননুমোদিত ক্যাম্পাস বা প্রোগ্রাম বা কোর্সে ভর্তি হলে তার অর্জিত সেই সনদ কাজে লাগে না বলেও সতর্ক করে দেন তিনি।

ঢাকা, ২৪ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।