ওই নেতার বিরুদ্ধে আরো নানান অভিযোগ পুলিশের হাতে...বশেমুরবিপ্রবির কম্পিউটার চুরি, যুবলীগ নেতা বহিষ্কার


Published: 2020-08-15 16:52:52 BdST, Updated: 2020-09-21 16:40:53 BdST

বশেমুরবিপ্রবি লাইভ: এবার গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কম্পিউটার চুরির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে যুবলীগ নেতা পলাশ শরীফকে দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহেদ মাহমুদ বাপ্পী ও সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মো. ফিরোজ মাহমুদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গোপালগঞ্জ জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশে পলাশ শরীফকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি পদ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সংগঠনের সকল প্রকার কর্মকাণ্ড থেকে তাকে বিরত থাকারও আদেশ দেয়া হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, পলাশ শরীফ গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তার ভাই আমিনুল ইসলাম শরীফ ওরফে লাচ্চু শরীফ গোপীনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার রাতে (১৩ আগস্ট) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার মহাখালীর ‘জিসান ইন্টারন্যাশনাল’ হোটেলে অভিযান চালিয়ে একটি কক্ষ থেকে ৩৪টি কম্পিউটার উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় হুমায়ুন ও দুলাল নামে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। তারা অনেক তথ্য দেন।

ওই গ্রেফতাররা জিজ্ঞাসাবাদে জানান, হোটেল ব্যবসায়ী গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি পলাশ শরীফসহ একটি চক্র বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার চুরির সঙ্গে সম্পৃক্ত। এ ঘটনার পর থেকে পলাশ শরীফ পলাতক ছিলেন। তিনিই এর নেপথ্যে ছিলেন।

এছাড়া কম্পিউটার চুরির ঘটনায় বশেমুরবিপ্রবি’র ১ শিক্ষার্থী সহ সর্বমোট আটক ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। এরা হলো ১.বশেমুরবিপ্রবি লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী মাসরুল ইসলাম পনি শরীফ ২.মো: দুলাল মিয়া,কুমিল্লা ৩.মো: হুমায়ুন কবির,ময়মনসিংহ ৪.আ: রহমান সৌরভ শেখ, বরফা শেখ পাড়া ৫. হাসিবুর রহমান ওরফে শান্ত ওরফে কাকন, বরফা মধ্যপাড়া ৬. নাজমুল হাসান, রাজৈর, মাদারীপুর ৭. নাইম উদ্দিন, বরফা, গোপালগঞ্জ।

উল্লেখ্য, ঈদের ছুটির মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির পেছন দিকের জানালা ভেঙে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত ১০ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. প্রফেসর নূর উদ্দিন আহমেদ বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় মামলা করেন।

জানা গেছে ওই নেতাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দিতে একটি শক্তিশালী চক্র কাজ করছে। তারা বিভিন্ন নেতাদের সঙ্গে ও পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। তবে পুলিশ জানিয়েছে তথ্য প্রমান যাচাই বাচাই চলছে। প্রাথমিক ভাবে চুরির সাথে ওই যুবলীগ নেতার সংশ্লিস্টতা রয়েছে। পুরিশ আরো জানিয়েছে পলাশের বিরুদ্ধে আরো বিভিন্ন অভিযোগ আসছে। তদন্ত চলছে।

ঢাকা, ১৫ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআইটি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।