ফিয়নসের সঙ্গে ঝগড়া, আহসানুল্লাহ ইউনিভার্সিটি ছাত্রীর আত্মহত্যা!


Published: 2020-02-14 01:32:38 BdST, Updated: 2020-04-09 09:37:30 BdST

চুয়াডাঙ্গা লাইভঃ ফিয়নসের সঙ্গে ঝগড়ার পর আহসানুল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজির ছাত্রী ভয়ংকর পথ বেছে নিয়েছেন। রাগে ক্ষোভে মোবাইল ফোন ভেঙে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। তার নাম নুসরাত জাহান নাভানা। বৃহস্পতিবার সকালে চুয়াডাঙ্গায় গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। তিনি চুয়াডাঙ্গা শহরের মাস্টারপাড়ার আবদুল হান্নানের মেয়ে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানান, আগামী ২৭ মার্চ নাভানার সঙ্গে চুয়াডাঙ্গা শহরের হকপাড়ার এমএ বারীর ছেলে তন্ময়ের বিয়ের দিন ধার্য ছিল। তাদের দুই জনের মধ্যে প্রতিদিন মোবাইল ফোনে কথা হতো, মাঝেমধ্যে ঝগড়াও হতো। বুধবার রাতে ঝগড়ার একপর্যায়ে নাভানা তার মোবাইল ফোন আঁছড়ে ভেঙে ফেলেন।

রাত সাড়ে ৯ টায় তার মায়ের ফোন দিয়ে তন্ময়ের সঙ্গে কয়েক মিনিট কথা বলার পর শেবার ঘরে চলে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে স্বজনরা ডাকাডাকি করলেও সাড়া মেলেনি। পরে জানালা দিয়ে তাকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ খান জানান, আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে তন্ময়ের বিরুদ্ধে স্বজনরা মামলা করেছেন। আমরা খোঁজ খবর নিতে শুরু করেছি। বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ঢাকা, ১৩ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।