ঢাবি ভিসির সঙ্গে কোইকার কান্ট্রি ডিরেক্টরের সাক্ষাৎ


Published: 2020-01-28 18:34:46 BdST, Updated: 2020-02-17 09:44:39 BdST

ঢাবি লাইভঃ কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি’র (কোইকা) কান্ট্রি ডিরেক্টর মি. কেরি জো হিউনগু মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন। এসময় কোইকার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জিয়ুন শিন, সেরিন পার্ক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেশন, ক্রিয়েটিভিটি এন্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক মো. রাশেদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

সাক্ষাৎকালে তাঁরা পারস্পরিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি নিয়ে বিশেষ করে কোইকার সহযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান উন্নয়ন এবং সহযোগিতামূলক কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করেন। মি. কেরি জো হিউনগু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোইকার কর্মসূচি সফলভাবে পরিচালনায় সহযোগিতার জন্য ভিসিকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

তিনি ইনোভেশন ও এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপের মাধ্যমে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেশন, ক্রিয়েটিভিটি এন্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ সেন্টারে কোইকার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে ভিসিকে আশ্বস্ত করেন। এছাড়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে চলমান কোরিয়ান ভাষা কোর্সের সম্প্রসারণ ও উন্নয়নেও কোইকার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি ভিসিকে জানান।

ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান কান্ট্রি ডিরেক্টর হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনের জন্য কেরি জো হিউনগুকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। ভিসি তাঁকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান কোইকার সকল কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নে সার্বিক সাহায্য-সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে কোরিয়ানদের বিনিয়োগ ও ব্যবসা-বাণিজ্যে দোভাষীর প্রয়োজন রয়েছে এবং দোভাষীর এই চাহিদা পূরণে ঢাবি আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে পরিচালিত কোরিয়ান ভাষা কোর্সের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আসা এবং সহযোগিতা প্রদানের জন্য কোইকার কান্ট্রি ডিরেক্টর কেরি জো হিউনগুকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।