ব্রেকআপের পর সেদিন বান্ধবীর বাসায় গিয়ে কান্নাকাটি করেন রুম্পা!


Published: 2019-12-08 13:21:05 BdST, Updated: 2020-01-19 13:28:09 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে ব্রেকআপের পর স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটি ছাত্রী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা সেদিন তার বান্ধবীর বাসায় গিয়ে কান্নাকাটি করেছিলেন। ওই ঘটনার ৫ ঘন্টা পর রুম্পার লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে তাকে হত্যা করা হয়েছে নাকি তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা এখনও স্পষ্ট নয়।

রুম্পার লাশ উদ্ধারের ঘটনা তদন্তে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, আয়েশা কমপ্লেক্সের ৫ম তলায় রুম্পার এক বান্ধবী থাকেন। ওই ভবনের ছাদ থেকে পড়েই রুম্পার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে তিনি পড়ে গিয়ে নাকি তাকে কেউ ফেলে দিয়েছে সেটা স্পষ্ট নয়। ওইদিন বিকেল পাঁচটায় রুম্পা তার বান্ধবীর বাসায় গিয়েছিলেন। সেখানে তার বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ায় কান্নাকাটি করেন। পরে তিনি শান্তিবাগে নজের বাসার পাশে এক ছাত্রীকে পড়াতে চলে যান। সেখানে আধঘন্টার মতো পড়িয়ে বাসায় চলে আসেন রুম্পা। বাসায় ফিরে তিনি আবারো কাজ আছে বলে বেরিয়ে যান। এসময় সন্ধ্যা প্রায় ৭ টা বাজে। পরের সাড়ে ৩ ঘন্টা সময় রুম্পা কোথায় ছিলেন এটা নিয়েই রহস্য দেখা দিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করছে পুলিশ।

এদিকে রুম্পা হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, রাজধানী ঢাকার শান্তিবাগে একটি ফ্ল্যাটে মায়ের সঙ্গে থেকে পড়াশোনা করতেন রুম্পা ও তার ছোট ভাই। পড়াশোনার পাশাপাশি রুম্পা টিউশনি করাতেন। গত বুধবার টিউশনি শেষে বাসায় ফেরার পর রুম্পা। এরপর বাইরে কাজ আছে বলে আবার বাসা থেকে বের হন। কিন্তু এরপর রাতে আর বাসায় ফিরেননি। স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার সন্ধান পাননি। বৃহস্পতিবার রুম্পার মা-সহ স্বজনরা রমনা থানায় গিয়ে লাশের ছবি দেখে তাকে শনাক্ত করেন।

ঢাকা, ০৮ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।