‘আমার ভাতিজির সঙ্গে স্ট্যামফোর্ড ভার্সিটির এক ছাত্রের সম্পর্ক ছিল’


Published: 2019-12-07 06:46:22 BdST, Updated: 2020-08-05 08:51:18 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : ‘আমার ভাতিজির সঙ্গে স্ট্যামফোর্ড ভার্সিটির এক ছাত্রের সম্পর্ক ছিল, যতটুকু শুনেছি তাদের মাঝে ঝামেলা চলছিল। রুম্পার লাশ উদ্ধারের পেছনে তার কোন সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তা আমি জানি না। আমার ভাতিজিকে হত্যা করা হয়েছে। তার খুনিদের বিচার চাই।’ ক্ষোভের সঙ্গে এই কথাগুলো বলেন রুম্পার চাচা নজরুল ইসলাম।

স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ছাত্রী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার লাশ বৃহস্পতিবার রাতে সনাক্ত করেছে তার পরিবারের সদস্যরা। এর আগে বুধবার রাতে তার লাশ উদ্ধার করে। রুম্পা পুলিশ পরিদর্শক রোকন উদ্দিনের মেয়ে। রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনের একটি বাড়ির ছাদ থেকে তাকে ফেলে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় রমনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) শেখ মোহাম্মদ শামীম এ তথ্য জানিয়েছেন। শেখ মোহাম্মদ শামীম বলেন, অপমৃত্যুর মামলা না করে রমনা থানার এসআই খায়ের বাদী হয়ে এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আমরাও ধারণা করছি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় কে বা কারা জড়িত, তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, রাজধানী ঢাকার শান্তিবাগে একটি ফ্ল্যাটে মায়ের সাথে থেকে পড়াশোনা করতেন রুম্পা ও তার ছোট ভাই। পড়াশোনার পাশাপাশি রুম্পা টিউশনি করাতেন। গত বুধবার টিউশনি শেষে বাসায় ফেরার পর রুম্পা। এরপর বাইরে কাজ আছে বলে আবার বাসা থেকে বের হন। কিন্তু এরপর রাতে আর বাসায় ফিরেননি। স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার সন্ধান পাননি। বৃহস্পতিবার রুম্পার মা-সহ স্বজনরা রমনা থানায় গিয়ে লাশের ছবি দেখে তাকে শনাক্ত করেন।


ঢাকা, ০৬ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।