তিনটি দাবি পূরণ হলে ক্লাসে ফিরবেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা (ভিডিও)


Published: 2019-11-14 18:42:14 BdST, Updated: 2019-12-13 08:49:59 BdST

বুয়েট লাইভঃ বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে দেওয়া ডিবি পুলিশের চার্জশিটের পর এবার তিনটি দাবি পূরণ হলেই ক্লাস-পরীক্ষায় মনোনিবেশ করবেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা।

আবরার হত্যা মামলার চার্জশিট দাখিলের পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে একটি সংবাদ সম্মেলন করে নিজেদের অবস্থান জানান বুয়েটের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এতে গত ০২ নভেম্বর এক বৈঠকে বুয়েট প্রশাসনকে দেওয়া শিক্ষার্থীদের তিনটি দাবি বাস্তবায়ন হলে ক্লাসে ফেরার কথা ব্যক্ত করেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের দেওয়া তিনটি দাবি হলো-
১.চার্জশিটের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা।
২.আহসান উল্লাহ, তিতুমীর ও সোহরাওয়ার্দী হলের র‌্যাগের ঘটনায় অভিযুক্তদের অপরাধের মাত্রা অনুযায়ী শাস্তি দেওয়া।

৩. সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি ও র‌্যাগের জন্য সুস্পষ্টভাবে বিভিন্ন ধাপে ভাগ করে শাস্তির নীতিমালা করে বুয়েটের একাডেমিক কাউন্সিল ও সিন্ডিকেট থেকে অনুমোদন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ডিন্যান্সে অন্তর্ভুক্ত করা।

সংবাদ সম্মেলনে বুয়েটের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৬ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী অনিরুদ্ধ গাঙ্গুলি জানান, বুয়েটের টার্ম ফাইনাল পরীক্ষার বিষয়ে গত ০২ নভেম্বর বুয়েটের ভিসি, ডিএসউব্লিউ ও ডিনদের সঙ্গে আলোচনা করে তিনটি দাবি জানিয়েছিলেন তারা। এর মধ্যে দুটি দাবি বাস্তবায়ন হলে পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণে সম্মত এবং তৃতীয় দাবি বাস্তবায়ন করা হলে টার্ম ফাইনাল পরীক্ষায় বসার শর্ত জুড়ে দিয়েছিলেন শিক্ষার্থীরা।

তিনি জানান, গত ০২ নভেম্বরের আলোচনায় বুয়েট প্রশাসন পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে দুটি দাবি বাস্তবায়ন করার আশ্বাস দেন। কিন্তু দুই সপ্তাহের মধ্যেও দাবিগুলো বাস্তবায়নে প্রশাসনের কোনো পদক্ষেপ না দেখায় হতাশা ব্যক্ত করেন শিক্ষার্থীরা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের গাফিলতি রয়েছে বলেও দাবি করেন শিক্ষার্থীরা।

আবরারের বাবার করা মামলার এজাহারভুক্ত ১৯ জন আসামীর বাইরে তদন্ত করে আরো ছয়জনকে চার্জশিটের অন্তর্ভুক্ত করায় সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন শিক্ষার্থীরা।

ভিডিও: https://www.facebook.com/Campuslive24/videos/422369291771356/

প্রসঙ্গত, গত ০৬ অক্টোবর আবরার ফাহাদ হত্যার পরদিন আবরারের বাবা ১৯ শিক্ষার্থীকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা করেন। উক্ত ঘটনায় গতকাল বুধবার ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

তদন্তে নেমে পুলিশ এজাহারের ১৬ জনসহ ২১ জনকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে আবরার হত্যায় ১১ জন সরাসরি যুক্ত ছিলেন বলে জানায় ডিবি।

তারাই তাকে কয়েক দফায় মারধর করেন। বাকি ১৪ জন বিভিন্ন পর্যায়ে বিভিন্নভাবে এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলেন। তিনি বলেন, চার্জশিটে ৩১ জনকে সাক্ষী রাখা হয়েছে।

ঢাকা, ১৪ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।