৩৮ দিন ধরে অচল বুয়েট, সেশনজটে পড়ছেন শিক্ষার্থীরা


Published: 2019-11-14 15:04:18 BdST, Updated: 2019-12-13 08:46:37 BdST

বুয়েট লাইভ: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার বিচারসহ বিভিন্ন দাবিতে চলমান আন্দোলনের মুখে স্থবির হয়ে পড়েছে সব ধরনের কার্যক্রম। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে চলছে স্থবির অবস্থা। অচল বুয়েট ক্যাম্পাস কবে নাগাদ সচল হবে বিষয়টি এখনো অনিশ্চিত। গত ৩৮ দিন ধরে অচল বুয়েটে সেশনজটে পড়ছেন শিক্ষার্থীরা।

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ক্যাম্পাস সচল হবে বলে আশা করছেন শিক্ষকরা। এ অবস্থায় শিক্ষার্থীরা চলতি বছরের সিলেবাস থেকে পিছিয়ে পড়ছেন এবং সেশনজটে পড়তে যাচ্ছেন বলে বুয়েট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক প্রফেসর নিজানুর রহমান জানান, আবরার হত্যার বিচারে ইতোমধ্যে পুলিশ চার্জশিট আদালতে জমা দিয়েছে। আমাদের কাছে তার একটি কপি দেয়া হবে। সেটি পেলে বুয়েটের গঠিত তদন্ত কমিটির কাছে দেয়া হবে। তার ভিত্তিতে যারা এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে তাদের স্থায়ীভাবে বুয়েট থেকে বহিষ্কার করা হবে।

এসময় প্রফেসর মিজানুর রহমান আরো বলেন, বুয়েট প্রশাসনের কাছে শিক্ষার্থীদের একটি দাবি পূরণ অসম্পন্ন ছিল। আমরা আশা করছি, অপরাধীদের স্থায়ী বহিষ্কার করা হলে সে দাবি বাস্তবায়ন হবে, শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা ফিরবেন। এ বিষয়ে বুয়েট ভিসি ও আমাদের (শিক্ষকদের) সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে। আমরা আশা করি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আবারও বুয়েট ক্যাম্পাস সচল হবে। শিক্ষার্থীদের প্রধান কাজ ক্লাস-পরীক্ষায় মনোনিবেশ করবেন।

তবে আবরার হত্যার সঙ্গে জড়িতদের স্থায়ী বহিষ্কার করলেই ক্লাসে ফিরবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন বুয়েটের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। তারা নতুন করে আরও তিন দফা দাবি জুড়ে দিয়েছেন বুয়েট প্রশাসনকে। এসব দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তাদের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

জানতে চাইলে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সমন্বয়ক অন্তরা তিথি জানান, আমরা অনেকগুলো দাবি থেকে সর্বশেষ বুয়েট প্রশাসনকে তিনটি দাবি জানিয়েছি। দাবিগুলোর মধ্যে রেয়েছে, চার্জশিটভুক্ত আসামিদের স্থায়ী বহিষ্কার, সাম্প্রতিক র‌্যাগিংয়ের ঘটনাগুলোর তদন্ত ও বিচার, কেউ কোনো রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকলে তার শাস্তির বিষয়ে একটি সুনির্দিষ্ট বিধিমালা প্রণয়ন।

উল্লেখ্য, বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে গত ৬ অক্টোবর রাতে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর শেরেবাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির করিডোর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা, ১৪ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।