ফরিদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় চান বশেমুরবিপ্রবির সেই যৌন নির্যাতনকারী আক্কাস


Published: 2019-10-21 19:36:14 BdST, Updated: 2019-11-22 23:25:49 BdST

বশেমুরবিপ্রবি লাইভঃ ফরিদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে লিখেছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ আককাস আলী। পাঠকদের জন্য আককাস আলির টাইমলাইন থেকে তার স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

“ফরিদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় চাই
বরাবর
প্রধান মন্ত্রী
হে মমতাময়ী মা, আশা করি আপনি ভালো আছেন। শুরুতে আপনার দীর্ঘায়ু কামনা করি। ১৯৯৯ সালে আইন পাশ হয় যে ১১টি বৃহত্তম জেলায় ১১টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার। ফরিদপুর ১১টি বৃহত্তম জেলার মধ্যে একটি অন্যতম জেলা। কিন্তু দুঃখের বিষয় যে ফরিদপুর এখনও সে আলোর মুখ দেখেনি।

অথচ ফরিদপুরের পরে জন্ম অনেক জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়েছে। আমরা ফরিদপুর বাসী আপনার কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি যে অতি দ্রুত ফরিদপুরে একটি ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করে ফরিদপুরবাসীর অনেক দিনের আশা পূরন করবেন।

লেখক
মোঃ আককাছ আলী
অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর
সিএসই বিভাগ, বশেমুরবিপ্রবি, গোপালগঞ্জ”

ফেসবুক পোস্ট

 

উল্লেখ্য, গত এপ্রিলের প্রথমদিকে সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকা আক্কাস আলীর বি’রুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে। পরে এটি ভাইরাল হয়। সমস্ত মিডিয়া এই যৌন হয়রানির বিষয়টার তথ্যানুসন্ধ্যান করলে বেরিয়ে আসে সত্যতা।

শিক্ষার্থীরা তার অপসারণ দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে আক্কাস আলী চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন। একই সঙ্গে তাকে একাডেমিক ও প্রশাসনিক সব কর্মকাণ্ড থেকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়ে অভিযোগ তদন্তে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আক্কাস আলীকে বিভাগীয় চেয়ারম্যানের পদ থেকে আজীবনের জন্য অব্যাহতি দেয়। এ ছাড়া আগামী চার বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক কাজ থেকে বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়া হয়।

ঢাকা, ২১ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।