ঢাবিতে সাপ্লিমেন্টারী পরীক্ষা পদ্ধতি চালুর দাবিতে মানববন্ধন


Published: 2019-07-17 21:13:57 BdST, Updated: 2019-08-19 08:08:06 BdST

ঢাবি লাইভ: যথাসময়ে পরীক্ষার ফল প্রকাশ ও সাপ্লিমেন্টারী পরীক্ষা পদ্ধতি চালুর দাবি জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থীরা। বুধবার দুপুরে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে বিজ্ঞান অনুষদের গণিত বিভাগ, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগ, রসায়ন বিভাগ এবং পরিসংখ্যান বিভাগের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেন।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, জীববিজ্ঞান অনুষদ, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদসহ অন্যান্য অনুষদে সম্পূরক পরীক্ষা পদ্ধতি থাকলেও বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থীরা এই সুযোগ পায় না। এরপর আবার অনেক বিভাগে ফলাফল দিতেও বিলম্ব করে। এর ফলে এই অনুষদের অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের পুনঃভর্তির এই দুষ্টচক্র চলতে থাকে এবং এর ফলে অনেক শিক্ষার্থী ঝরে পড়ে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, এবছর গণিত বিভাগে প্রথম বর্ষের ফলাফল সাত মাস পর প্রকাশ হয়। যেখানে ১৮৫ শিক্ষার্র্থীর মধ্যে অনুত্তীর্ণ হয় ৭০। পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষে মোট পরীক্ষা দেয় ১৪৯ জন। ছয় মাস পর প্রকাশিত ফলাফলে এর মধ্যে অনুত্তীর্ণ হয় ৩৮ জন। এইসব বিভাগে ফলাফল দেরিতে দেয়ায় বিপাকে পরেছেন পুণ:ভর্তি সংক্রান্ত জটিলতায় পরেছেন অনুত্তীর্ণ এই শিক্ষার্থীরা।

ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হল ছাত্র সংসদের ভিপি ও গণিত বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী হুসাইন আহমেদ সোহান ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ‘‘দীর্ঘ বছর যাবৎ বিজ্ঞান অনুষদের এই বিভাগগুলোতে শিক্ষার্থীদের রিএ্যাডমিশনের চক্র চলতে আছে। কিন্তু প্রশাসন এই সমস্যা কমিয়ে আনার জন্য কোন ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না। আমাদের গণিত বিভাগের শিক্ষকরা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস-পরীক্ষা নিয়ে এক মাসের মধ্যে তাদের ফাইনাল পরীক্ষার রেজাল্ট দিতে পারে কিন্তু আমাদের এইখানে কেন সাত মাস সময় লাগবে?’’

শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনে এক পর্যায়ে সংহতি জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেন, ঢাবি ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মো. ফয়েজ উল্লাহ।

ডাকসুর এজিএস ও ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ‘‘সেশনজটের সমস্যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন ছিল। আমাদের বিজনেজ ফ্যাকাল্টি, কলা অনুষদ বা সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ এই সমস্যাটি আগের তুলনায় কিছুটা হলেও কাটিয়ে নিয়ে এসেছে।

কিন্তু বিজ্ঞান অনুষদ আরও বেশি আধুনিক, আরও বেশি ডিজিটাল হওয়ার কথা ছিল, আরও বেশি নিয়মতান্ত্রিক হওয়ার কথা ছিল, কেন তাদের ফলাফল প্রকাশে সাত মাস বিলম্ব হবে সেটি সেই অনুষদের সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যান, সংশ্লিষ্ট ডিনকে অবশ্যই জবাব দিতে হবে।’’

ঢাবি ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মো. ফয়েজ উল্লাহ ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ‘‘বিজ্ঞান অনুষদে সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা দেয়ার নিয়মটি আগে ছিল। কিন্তু বিগত পাঁচ বছর ধরে এখানে নিয়ম করা হয়েছে যে কোন পরীক্ষার্থী ফেইল করলে তাকে পুনরায় ৬ সপ্তাহের মধ্যে ১২ হাজার টাকা জরিমানা দিয়ে ভর্তি হতে হবে। এই ধরনের অগণতান্ত্রিক ও শিক্ষার্থী অবান্ধব সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কিভাবে নেয় সেটা আমাদের বোধগোম্য নয়।’’

পরে দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান করে শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে সেখান থেকে একটি মৌন মিছিল নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামানের কাছে স্বারকলিপি দেন।


ঢাকা, ১৭ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।