ঢাবিতে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়ন বন্ধের দাবিতে দুই দফা প্রস্তাব


Published: 2019-07-14 18:33:05 BdST, Updated: 2019-08-17 17:34:25 BdST

ঢাবি লাইভ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহের উদ্যোগে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়ন বন্ধের দাবি জানিয়ে দুই দফা প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন শিক্ষার্থীরা। রবিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নমুক্ত সমাজ গড়তে মানবন্ধনে এসব প্রস্তাব তুলে ধরা হয়।

দুই দফা দাবিগুলো হচ্ছে, প্রচলিত আইনের সংস্করণ। শিক্ষাব্যাবস্থা,সমাজ ও যোগাযোগ মাধ্যম।

ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়ন বন্ধে দুই দফা উত্থাপন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ব্যান্ড সোসাইটির সভাপতি তানভীর আল ফারাবি বলেন ধর্ষণের বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্রুনালের মাধ্যমে ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে বিচার করতে হবে। ধর্ষণের সহযোগিদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

দ্বিতীয় দফা দাবিতে তিনি বলেন, প্রচলিত শিক্ষা ব্যাবস্থায় যৌন শিক্ষার বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা। ক্লাসে পাঠদানের সময় যৌন বিষয়ে পাঠদান এড়িয়ে যাওয়া বন্ধ করা। সমাজের বিভিন্ন স্তরে নারীপুরুষের পরস্পরের প্রতি সম্মান এবং পরস্পরের ইচ্ছা অনিচ্ছার মূল্যায়ন সম্পর্কিত প্রচারনা বৃদ্ধি করা। ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির কারন নির্ণয়ে সামাজিক গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করা এবং ফলাফল জনস্বার্থে প্রচার করা।

ডাকসুর কমনরুম ও ক্যাফেটেরিয়া বিষয়ক সম্পাদক বিএম লিপি আক্তার বলেন, মৌলবাদীরা ধর্ষণের কারণ হিসেবে নারীর পোষাককে দায়ী করে অথচ শিশু ধর্ষনের ক্ষেত্রে সেটা তারা কী বলবেন? আমরা অত্যন্ত সুভাগ্যবান যে আমরা আন্দোলনে আমাদের ভাইদের পাশে পেয়েছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টুরিস্ট সোসাইটির সভাপতি আসিফ আলম বলেন, আমাদের মৌনতায় ধর্ষকদের যৌনতা বৃদ্ধি করে।ধর্ষণ বন্ধে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।


ঢাকা, ১৪ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।