‘বয়ফ্রেন্ডের’ বিচার চেয়ে ধর্ষণের শিকার ছাত্রী, মেয়রপুত্র ফের কারাগারে


Published: 2019-07-11 20:50:13 BdST, Updated: 2019-07-20 22:43:55 BdST

শরীয়তপুর লাইভ: বয়ফ্রেন্ডের ধর্ষণের বিচারের আশ্বাসে কলেজছাত্রীকে ফাঁকা বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করেছিলেন শরীয়তপুরের জাজিরা পৌরসভার মেয়রপুত্র মাসুদ বেপারী। এঘটনায় গ্রেফতারের ৮ দিনের মাথায় তিনি জামিনে মুক্ত হলে এনিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। আতংক শুরু হয় ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর পরিবারে।

এনিয়ে সমালোচনার পর সেই মেয়রপুত্র মাসুদ বেপারীকে ফের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার শরীয়তপুর আদালতে হাজির হলে তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে ফের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন জেলা ও দায়রা জজ প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস।

এর আগে ৩০জুন গ্রেফতার হন মেয়রের ছেলে মাসুদ বেপারী। ৮ দিনের মাথায় জেলা ও দায়রা জজের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মরিয়ম মুন মঞ্জুরী ধর্ষণের মামলায় মেয়রপুত্র মাসুকে জামিন দিয়েছিলেন। জামিনে বের হয়েই তিনি ভিকটিমের পরিবারের সস্যদের মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দেন।

এ অবস্থায় জাজিরা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ভিকটিমের বাবা। মাসুদ বেপারিকে জামিন দেয়ার পর ফুঁসে উঠে শরীয়তপুরের বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থী ও সুশীল সমাজের লোকজন। তারা ১০ জুলাই শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন।

জানা গেছে, জাজিরা ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী ও জাজিরা মডার্ন ক্লিনিকের কর্মচারির সঙ্গে শরীফ সরদারের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে শরীফ তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এঘটনায় ওই ছাত্রীকে বিচারের আশ্বাস দিয়ে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন মেয়রপুত্র মাসুদ। ৩০ জুন ওই ছাত্রীর ও তার বাবা জাজিরা থানায় ২ জনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। ১ জুলাই আালতের মাধ্যামে মাসুদকে শরীয়তপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

ঢাকা, ১১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।