গার্লফ্রেন্ডকে বিয়ের প্রস্তাব, বাসায় ডেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রকে হত্যা!


Published: 2019-05-21 20:16:49 BdST, Updated: 2019-09-20 23:17:38 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: রাজধানীর কুড়াতলিতে গার্লফ্রেন্ডের বাসায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আশিক-এ-এলাহীকে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গার্লফ্রেন্ডকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ায় ওই হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে।

যদিও বিষয়টি অস্বীকার করছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের গার্লফ্রেন্ড আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ওই ছাত্রী। তার দাবি বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আশিকের সঙ্গে তার ঝগড়া হয়েছে। একপর্যায়ে তিনি বাসা থেকে বেরিয়ে যান। পরে ফিরে এসে দেখেন আশিকের লাশ ঝুলছে।

ভাটারা থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. শিহাবউদ্দিন বলেন, যে মেয়েটির বাসা থেকে আশিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, সে তার সঙ্গেই পড়তো। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ছেলেটি সকালে মেয়েটির বাসায় গিয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয়।

ওই ছাত্রী জানিয়েছে, সে প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাদের মধ্যে ঝগড়াও হয়। এরপর মেয়েটি তার বাসা থেকে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর মেয়েটি ঘরে ফিরে আশিককে কোমরের বেল্ট দিয়ে জানালার গ্রিলের সঙ্গে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দেখতে পায়। পরে বাড়ির মালিক পুলিশকে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থাল থেকে আশিককে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

নিহত ছাত্রের মামাত ভাই ফিরোজ আলম সুমন অভিযোগ করেন, মঙ্গলবার ভোরে ওই ছাত্রী আশিকের ভাই আলআমিনকে ফোন দিয়েছিল। কিন্তু সে ঘুমিয়ে থাকায় ফোন রিসিভ করতে পারেনি। পরে ফোন দিলে ওই ছাত্রী জানায়, আপনার ভাই এখানে এসে খুবই সিনক্রিয়েট করেছে, সে হাসপাতালে আছে। এরপর পুলিশও ফোন দিয়ে বিষয়টি জানায়।

তিনি জানান, একই ভার্সিটির সহপাঠী ওই মেয়ের সঙ্গে দেড় বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল আশিকের। মঙ্গলবার ভোরে ফোন করে বাসায় ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার পর তা আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্ট চলছে বলে অভিযোগ তার।


ঢাকা, ২১ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।