হিজাব নিষিদ্ধ, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বাতিলের আবেদন ছাত্রীর!


Published: 2019-04-12 13:07:49 BdST, Updated: 2019-04-20 11:05:47 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : হিজাবে নিষেধাজ্ঞা থাকার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বাতিলের আবেদন করেছেন এক ছাত্রী। তার ওই আবেদনপত্রটি এখন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি প্রাইম ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। ভর্তির পর তিনি জানতে পারেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার অযুহাতে ছাত্রীদের নিকাব পরা নিষিদ্ধ। এটা জানার পর তিনি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর বিশ্ববিদ্যালয়টি ছেড়ে দেয়ার আবেদন জানান। গত মাসে (১১ মার্চ) ওই ছাত্রী রেজিস্ট্রার বরাবর এমন করেন।

স্প্রিং সেমিস্টারের নিলুফা ইয়াসমিন নামে ওই ছাত্রী তার চিঠিতে লিখেন। আমি প্রাইম ইউনিভার্সিটির সিএসই ডিপার্টমেন্টে তৃতীয় সেমিস্টাসে ক্রেডিট ট্রান্সফারের মাধ্যমে ভর্তি হই। ভর্তির পর জানতে পারি, ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসের ভেতরে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার অযুহাতে মেয়েদের নিকাব পড়া নিষিদ্ধ। যা আমার ইসলামী মূল্যবোধের সঙ্গে সাংঘর্ষিক এবং পোশাক নির্বাচনে ব্যক্তি স্বাধীনতার হস্তক্ষেপের শামিল।

তিনি লিখেন, যেহেতু ইসলামের বিধি লংঘন করে পর্দা পালনে শিথিলতা প্রদর্শনে আমি অপারগ তাই এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভর্তি বাতিলের আবেদন করছি।

এব্যাপারে শুক্রবার প্রাইম ইউনিভার্সিটির ওয়েবসাইটে দেয়া রেজিস্ট্রার মো. আবদুল জব্বারকে বারবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি।

পরে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এসিস্ট্যান্ট রেজিষ্ট্রার কাজী একরামুল হক ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ছাত্রীদের পর্দার ক্ষেত্রে এধরণের কোন বিধি নিষেধ নেই। এব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী ভর্তি বাতিলের আবেদন করেছে এমন কথা বললে তিনি বলেন, এমন তথ্য আমার জানা নেই। আপনি রেজিস্ট্রারকে ফোন করেন।

ঢাকা, ১২ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।