আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের


Published: 2019-03-20 23:56:52 BdST, Updated: 2019-04-24 10:33:25 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : নিরাপদ সড়কের দাবিতে করা আন্দোলন ২৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিতের ঘোষণা আসলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দ্বিমত পোষণ করেছেন। তারা নিরাপদ সড়কসহ ৮ দফা দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবারও তারা সড়কে অবস্থান নেবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন। বুধবার (২০ মার্চ) রাতে বসুন্ধরা এলাকায় আন্দোলনরত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এমন ঘোষণা দেন। এসময় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশসহ বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সেখানে উপস্থিত ছিলেন। তবে সেখানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাই উপস্থিত ছিলেন। বিইউপির শিক্ষার্থীদের সেখানে দেখা যায়নি।

অন্যদিকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ কিংবা অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অবস্থান কি তা জানা যানি। তারা বৃহস্পতিবার আন্দোলন করবেন নাকি বিরত থাকবেন এবিষয়ে স্পষ্ট কোন ঘোষণা অাসেনি। তবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কেউ কেউ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে জানিয়েছেন তারা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের পক্ষে। ৮ দফা দাবি মেনে নেয়ার আগেই এভাবে হুট করে আন্দোলন থেকে সরে যাওয়ার বিষয়টি তারা মেনে নিতে পারছেন না বলেও কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন।

এর আগে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ও ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়ার সঙ্গে আলোচনা করে ২৮ মার্চ পর্যন্ত নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের ঘোষণা দেওয়া হয়। বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের পক্ষ থেকে ওই ঘোষণা দেয়া হয়। এর পরেই চার বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা আসলো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, দোষী চালকের শাস্তিসহ নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঘোষিত ৮ দফা দাবি আদায়ে বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সকাল থেকেও তাদের সড়ক অবরোধ অব্যাহত থাকবে। শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদের সবগুলো দাবি নিয়ে প্রতিনিধি দল কথা বলেনি। যারা গেছে তারা আমাদের দাবি নিয়ে কথা বলতে পারেনি। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সুপ্রভাত বাস চালকের শাস্তি নিশ্চিত না হওয়া ও পাল্লাপাল্লি বাস চলাচল বন্ধসহ অন্যান্য দাবির দৃশ্যমান বাস্তবায়ন দেখতে চাই। না হলে আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হবে বলে উল্লেখ করেন তারা।

এদিকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে থাকা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ফেইসবুক পেইজ প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট অল্যায়েন্স অব বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয় মঙ্গলবার ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শিক্ষার্থীরা শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করেছেন। দেশের অধিকাংশ বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সারাদিন আন্দোলন অব্যাহত রেখেছিলেন। আন্দোলনে বিইউপির শিক্ষার্থীদের মধ্যে নির্বাচিত কোন প্রতিনিধি না থাকায় সারাদিনই সিদ্ধান্তহীনতা দেখা গেছে। সবশেষে বিইউপির ১০ শিক্ষার্থী মেয়র আতিকুল সহ পুলিশ কমিশনারের সাথে দেখা করে আন্দোলন স্থগিত করার ঘোষণা দেন। বিইউপি সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হুট করে আন্দোলন স্থগিতের সিদ্ধান্ত মেনে নেয়নি। এমতাবস্থায় সন্ধ্যায় মূল চত্বর, বসুন্ধরা থেকে আন্দোলনে উপস্থিত অন্যান্য শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

তারা অভিযোগ করেন, মিডিয়া এক পাক্ষিকভাবে বিইউপির ১০ শিক্ষার্থীর ঘোষণাকে "আন্দোলনকারীদের ঘোষণা" দাবি করলেও সন্ধ্যায় উপস্থিত আন্দোলনকারীরা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিলে তাদেরকে " আন্দোলনকারীদের একাংশ/চার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী" বলে খবর প্রকাশ করে। তারা ওই ধরনের এক পাক্ষিক সাংবাদিকতার তীব্র নিন্দা জানান। দশ শিক্ষার্থীর ঘোষণায় আন্দোলন স্থগিতের বিষয়টি বিভ্রান্তিকর বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা, ২০ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।