ঢাবির পাঁচ ছাত্রীহলের ৪ টিতেই ভিপি পদ হারিয়েছে ছাত্রলীগ


Published: 2019-03-12 05:12:10 BdST, Updated: 2019-03-25 00:26:39 BdST

ঢাবি লাইভ : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫টি ছাত্রী হলে কার্যত ছাত্রলীগের ফল বিপর্যয় হয়েছে। ৪টি হলেই ছাত্রলীগেরর নেতাকর্মীরা শীর্ষ পদ হারিয়েছেন। ভিপি পদ হারিয়েছে ছাত্রলীগ। অন্যদিকে স্বতন্ত্র ব্যানারে থাকা কোটা আন্দোলনের প্রার্থীরাই সবচেয়ে বেশি চমক দেখিয়েছে। 

জানা গেছে, কেবলমাত্র রোকেয়া হলে ছাত্রলীগ ভালো ফল করেছে। এছাড়া শামসুন্নাহার হলে ছাত্রলীগের অনেকটা ভরাডুবি হয়েছে। কুয়েত মৈত্রী হলে ভিপি-জিএস-এজিএসসহ ৫টি গুরুত্বপূর্ণ পদ হারিয়েছে ছাত্রলীগ। সুফিয়া কামাল হল সংসদ নির্বাচনেও ছাত্রলীগের পরাজয় হয়েছে কোটা আন্দোলন প্যানেলের প্রার্থীদের কাছে। শীর্ষ পদে জয়লাভ করেছেন কোটা আন্দোলনের প্রার্থীরা। ওই হলের ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন তানজিনা আক্তার সুমা। এছাড়া জিএস পদে মনিরা শারমিন এবং এজিএস লুৎফুন্নাহার নির্বাচিত হয়েছেন।

শামসুন্নাহার হল সংসদে কোটা আন্দোলনকারীদের কাছে ধরাশায়ী হয়েছে ছাত্রলীগ। ভিপি পদে জয়ী হয়েছেন শেখ তাসনিম আফরোজ ইমি। তিনি কোটা আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এমনকি নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের পর তাকে ডিবি পরিচয়ে আটকও করা হয়েছিল। জিএস পদে বিজয়ী হয়েছেন আফছানা ছপা। তিনিও কোটা আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এছাড়া এজিএস পদে ফাতিমা আক্তার জয়ী হয়েছেন। অন্যান্য পদের মধ্যে বিজয়ী হয়েছেন অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া সম্পাদক খাদিজা বেগম, সমাজসেবা সম্পাদক মোসা. শিরিন আক্তার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সামিয়াজ জাহান প্রাপ্তি, সাহিত্য সম্পাদক তাহসিন এবং সদস্য পদে তামান্না তাসনিম উপমা।

বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের হল সংসদ নির্বাচনে ভিপি ও জিএসসহ পাঁচ পদে জয় পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। ওই হলে ভিপি হয়েছেন সুস্মিতা কুণ্ডু, জিএস হয়েছেন সাগুপ্তা বুশরা। বাকি আট পদে জিতেছেন ছাত্রলীগের প্যানেলের প্রার্থীরা। সিলমারা ব্যালট উদ্ধারের ঘটনায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল ওই হল। সোমবার (১১ মার্চ) রাতে এই হলের নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হয়।

নির্বাচনে সাতটি পদে প্রার্থিতা রেখে স্বতন্ত্র প্যানেল ঘোষণা করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে জয় পেয়েছেন পাঁচ জন। তারা হলেন ভিপি সুস্মিতা কুণ্ডু, জিএস সাগুপ্তা বুশরা, এজিএস পদে মুন্নী আক্তার, সাহিত্য সম্পাদক সাহরীন সুলতানা ইরা ও অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া সম্পাদক জয়নব আক্তার। বাকী আটটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন।

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল সংসদ নির্বাচনে ভিপি পদে বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থী রিকি হায়দার আশা কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্যানেলের বলে জানা গেছে। কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন বর্জনের পরও তিনি ভিপি পদে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ছাত্রলীগের প্রার্থী কোহিনুর আকতার রাখিকে পরাজিত করে ভিপি হয়েছেন। হল সংসদে ১৩টির মধ্যে আরও দুইটি পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয় হয়েছেন। তারা হলেন- সাংস্কৃতিক সম্পাদক তাসলিন হালিম মিম ও সাহিত্য সম্পাদক পদে খাদিজা।

রোকেয়া হল সংসদে ভিপি হয়েছেন ছাত্রলীগের ইশরাত জাহান তন্বী, জিএস হয়েছেন ছাত্রলীগের সায়মা আক্তার, এজিএস হয়েছেন ছাত্রলীগের ফাল্গুনী দাস তন্বী। ওই হলে ১১টি পদে জিতেছে ছাত্রলীগ। অন্য দুটি পদে জিতেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ২৮ বছর পর সোমবার অনুষ্ঠিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন। সকাল থেকে ভোট গ্রহণকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে নির্বাচন বর্জন করেন ছাত্রলীগ ছাড়া সবকটি প্যানেলের প্রার্থীরা।

ঢাকা, ১২ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।