ইয়াবা সেবনে ছাত্রীকে ধর্ষণ, দুই পুলিশ কর্মকর্তার নামে মামলা!


Published: 2019-02-12 01:56:59 BdST, Updated: 2019-08-20 18:42:27 BdST

মানিকগঞ্জ লাইভ : ডাকবাংলোতে আটকে রেখে ইয়াবা সেবন করিয়ে অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে অবশেষে দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী সোমবার রাতে সাটুরিয়া থানায় ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন। তারা হলেন সাটুরিয়া থানার এসআই সেকেন্দার হোসেন ও এএসআই মাজহারুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, রোববার মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীমের কাছে ওই ছাত্রী দুই পুলিশ কর্তকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন। পরে পুলিশের ওই কর্মকর্তাকে থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়। গঠন করা হয় দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি।

তদন্ত কর্মকর্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মানিকগঞ্জ সদর সার্কেল) হাফিজুর রহমান জানান, সোমবার এ বিষয়ে তদন্ত করা হয়। দিনভর প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে ওই ছাত্রী পুলিশ সুপারের কাছে যে অভিযোগ করেছেন তার সত্যতা রয়েছে। এ ব্যাপারের ওই ছাত্রী সাটুরিয়া থানায় এসআই সেকেন্দার হোসেন ও এএসআই মাজহারুল ইসলামকে আসামি করে মামলা করেছেন। মামলাটি তদন্ত করবেন সাটুরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ। ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণের জন্য ওই ছাত্রীর মেডিকেল পরীক্ষাসহ প্রয়োজনে ডিএনএ টেস্ট করা হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এর আগে নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগে জানান, সাভারের আশুলিয়া এলাকার তার এক খালা সাটুরিয়া থানার এসআই সেকেন্দারের কাছে প্রায় তিন লাখ টাকা পাবেন। পাওনা টাকা আদায়ে গত বুধবার বিকেলে ওই খালা তাকে নিয়ে সাটুরিয়া থানায় যান। এসময় এসআই সেকেন্দার তাদের দুজনকে নিয়ে থানাসংলগ্ন সাটুরিয়া ডাকবাংলোতে যান। কিছুক্ষণ পর সেখানে থানার এএসআই মাজহারুল ইসলাম হাজির হন। ছাত্রী ও তার খালাকে আলাদা কক্ষে আটকে রাখে তারা। এরপর ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তা ছাত্রীকে ইয়াবা সেবন করিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। দুইদিন পর শুক্রবার সকালে ছাত্রী ও তার খালার হাতে পাঁচ হাজার টাকা তুলে দিয়ে সেকেন্দার তাদের সাটুরিয়া থেকে চলে যেতে বলেন। ধর্ষণের ঘটনা কাউকে জানালে ছাত্রীকে ক্রসফায়ারের ভয় দেখানো হয় বলেও লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

ঢাকা, ১২ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।