প্রাইভেটে যাওয়ার পথে ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গেল পুলিশ!


Published: 2018-02-12 01:10:43 BdST, Updated: 2018-07-22 20:36:59 BdST

রাজবাড়ী লাইভ : প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে এক কলেজ ছাত্রীকে তুলে নিয়ে যওয়ার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। পরে তাকে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। অপহরণ ও ধর্ষনের অভিযোগে এনামুল হক মামুন নামে এক পুলিশ কনেস্টবলের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আদালতের নির্দেশে মামলাটি শনিবার রাজবাড়ী সদর থানায় রেকর্ড করা হয়। এর আগে গত ৭ই ফেব্রুয়ারি ওই ছাত্রীর বাবা রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলাটি দাযের করেন। মামলার এজাহারে অপহরণের পর অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

অভিযুক্ত পুলিশ কনেস্টবল মামুন রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোদার বাজার এলাকার জহুরুল হকের ছেলে। তিনি ঢাকার মিরপুর ১৪ নম্বরে দাঙ্গা দমন শাখায় চাকরি করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রী রাজবাড়ী সরকারি কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে লেখাপড়া করেন। কলেজে যাতায়াতের পথে মামুন পুলিশের ভয় দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে উত্যক্ত করতো। বিষয়টি জানতে পেরে ওই ছাত্রীর বাবা মামুনকে সতর্ক করেন। এতে আরো ক্ষিপ্ত হন মামুন। ৩১শে জানুযারি সকালে ওই ছাত্রী প্রাইভেট পড়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হয়ে শহরের বড়পুল নামক স্থানে এলে মামুন মাইক্রোবাসযোগে তাকে অপহরণ করে নিযে যায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা করতে গেলে মামলা নিতে অস্বীকৃতি জানায় থানা কর্তৃপক্ষ। পরে তিনি আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি এফআইআর হিসেবে রেকর্ড করার জন্য সদর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

রাজবাড়ী সদর থানার এসআই জাহিদুল ইসলাম জানান, মামলাটির তদন্তভার আমার ওপর দেওয়া হয়েছে। অপহৃত ওই কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

ঢাকা, ১২ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।