ঘাটাইল উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি


Published: 2016-09-24 22:20:58 BdST, Updated: 2019-10-24 08:32:31 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: ঘাটাইলে সকল প্রকার রাজনৈতিক মিছিল, মিটিং, সভা ও সমাবেশের উপর ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। শনিবার দুপুর ১২টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এ আদেশ জারি থাকবে।

এ ব্যাপারে ঘাটাইল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন জানান, ঘাটাইল উপজেলার হামিদপুর বাসস্ট্যান্ড শহীদ মিনার চত্বরে শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমদ হত্যা মামলায় কারারুদ্ধ টাঙ্গাইল-৩ ঘাটাইল আসনের এমপি আমানুর রহমান খান রানার সমর্থকরা এমপির মুক্তির দাবিতে ও উপজেলা আওয়ামী লীগ এমপির ফাঁসির দাবিতে একই সময় মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করায় রাজনৈতিক সংঘাত এড়াতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি রাতে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমদ এর গুলিবিদ্ধ মরদেহ কলেজপাড়া এলাকায় তার বাসার সামনে থেকে উদ্ধার করা হয়। ঘটনার তিন দিন পর নিহত ফারুক আহমদ এর স্ত্রী নাহার আহমদ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে টাঙ্গাইল মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় জেলা গোয়েন্দা পুলিশকে। এই মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে ২০১৪ সালের ২৭ আগস্ট আনিসুল ইসলাম রাজা ও ৫ সেপ্টেম্বর মোহাম্মদ আলী নামের দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়।

পরে আদালতে তাদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী নেয়া হয়। এ জবানবন্দীতে টাঙ্গাইল-৩ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি আমানুর রহমান খান রানা, তার ভাই টাঙ্গাইল পৌরসভার তৎকালীন মেয়র সহিদুর রহমান খান মুক্তি, ব্যবসায়ী নেতা জাহিদুর রহমান কাকন ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সানিয়াত খান বাপ্পাসহ এমপির ঘনিষ্ঠ কয়েকজন এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত বলে তথ্য পায় ডিবি পুলিশ।

৬ এপ্রিল আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করে পলাতক আমানুর রহমান খান রানাসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। ১৭ মে ১০ জনের বিরুদ্ধে হুলিয়া ও মালামাল ক্রোকের নির্দেশ দেন আদালত। ২০ মে পুলিশ সাংসদের টাঙ্গাইল শহরস্থ বাসভবনে অভিযান চালিয়ে মালামাল জব্দ করে।

সর্বশেষ আসামিরা হাজির না হওয়ায় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেয়ার নির্দেশ দেন আদালত। পরে গত ১৮ সেপ্টেম্বর মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমদ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি টাঙ্গাইল-৩ ঘাটাইল আসনের এমপি আমানুর রহমান খান রানা আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর জামিন না মঞ্জুর করে তাকে জেল হাজতে পাঠান জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবুল মনসুর মিয়া।

১৯ সেপ্টেম্বর তাকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা, ২৪ সেপ্টেম্বর, (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//আইএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।