মদন উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে যেভাবে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী


Published: 2020-06-02 22:13:33 BdST, Updated: 2020-07-05 20:21:14 BdST

নেত্রকোনা লাইভ: বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে এক কিশোরী স্কুল ছাত্রী। তাকে অনেকটা জোড় করেই বিয়ের আয়োজন করতে যাচ্ছিল তার পরিবার। নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে ওই শিক্ষার্থী শহীদ স্বরণিকা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়াশুনা করে। তার নাম পাপিয়া। উপজেলা প্রসাশনের হস্তক্ষেপে মঙ্গলবার পৌর সদরের জাহাঙ্গীপুর (৭ নং ওয়ার্ড) ভাড়া বাসায় এ বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন উপজেলা সহকারি কমিশনার ( ভূমি) মোঃ আতিকুল ইসলাম।

তিনি ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, স্থানীয় লোকজনের কাছে জানতে পারি পৌর সদরে জাহাঙ্গীরপুর (৭নং ওয়ার্ড) মাছ ব্যাবসায়ীর বাবুল মিয়ার ৬ষ্ঠ শ্রণিতে পড়ুয়া মেয়ের বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে।

এমন সংবাদের প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শওকত জামিলকে সাথে নিয়ে তাদের বাসায় গেলে বর পক্ষ পালিয়ে যায়।

এ সময় মেয়ের বাবাকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না বলে মুচলেকা দিয়ে ছাড়া হয়। এবিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ওই কিশোরী শিক্ষার্থীকে দেখতে ভিড় জমায়।

ঢাকা, ০২ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//কেএইচএম//এআইটি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।