ছাত্রীকে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে নারী আটক


Published: 2020-01-18 21:51:04 BdST, Updated: 2020-03-28 14:27:56 BdST

গাজীপুর লাইভ: এক ছাত্রীকে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া উর্মি (১৮) গাজীপুরের শ্রীপুর এলাকার ভাড়াটিয়া কবিরের স্ত্রী। ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

শ্রীপুর থানার এসআই মো. নাজমুল সাকিব জানান, ধর্ষণের অভিযোগে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলার আসামিরা হলেন, শ্রীপুর উপজেলার নয়নপুর এলাকার সোহরাব মিয়ার ছেলে শরীফ (১৮), লিটন মিয়ার ছেলে সুজন (১৯), নয়নপুর এলাকার হারুন মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া কবিরের স্ত্রী উর্মি (১৮) ও অপর একজন শরীফ (২০)।

জানা গেছে, বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে সোহরাবের ছেলে শরীফ ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। তাতে সাড়া না দেয়ায় শরীফ তাকে উত্ত্যক্ত করতেন এবং অপহরণের হুমকি দিতেন। ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরী নয়নপুর এলাকার শিশু শিক্ষা মডেল স্কুল অ্যান্ড একাডেমির অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

তার মা স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় অপারেটর হিসেবে কাজ করেন। গত বুধবার তিনি তার কারখানায় ডিউটি শেষে রাত ১০টার দিকে বাসায় ফিরে মেয়েকে দেখতে পাননি।
আশপাশে খোঁজাখুঁজি করার পর একটি ঝোপ থেকে অজ্ঞান অবস্থায় মেয়েকে উদ্ধার করেন।
ঘটনার দিন রাত ৮টায় ঘরের বাইরে ওয়াশরুমে যাওয়ার সময় শরীফ ও তার সঙ্গীরা তার মেয়েকে মুখ চেপে ধরে তুলে নেন। পরে শরীফ তাকে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে যান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাকিব জানান, ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে পুলিশ বৃহস্পতিবার ভোরে উর্মিকে গ্রেপ্তার করেছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।