কলেজ ফাঁকি দিয়ে নয়নবন্ডের বাসায় চলে যেত মিন্নি!


Published: 2019-07-13 17:50:38 BdST, Updated: 2019-08-26 00:43:55 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যার ঘটনায় নানা তথ্য বেরিয়ে আসছে। বন্দুকযুদ্ধে নিহত নয়ন বন্ডের সঙ্গে রিফাতের স্ত্রীর সম্পর্ক নিয়ে নানা আলোচনা চলছে। এরই মাঝে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন নিহত নয়নবন্ডের মা। রিফাত হত্যার ঘটনা নিয়ে তিনি যেন বোমা ফাটালেন। জানালেন রিফাত মিন্নিকে মোটরসাইকেলে করে কলেজে দিয়ে চলে যাওয়ার পর সে নয়নবন্ডের বাসায় চলে যেত। ছুটি হওয়ার আগে আগে আবার কলেজে চলে যেত। এভাবে প্রায়দিনই মিন্নি নয়নের বাসায় যেতেন। বিয়ের পরেও নয়নের সঙ্গে মিন্নির সম্পর্ক ছিল।

নিহত নয়নবন্ডের মা শহীদা বেগম বলেন, ‘রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে ২৬ জুন (বুধবার)। এর আগের দিন মঙ্গলবারও মিন্নি আমাদের বাসায় এসে নয়নের সঙ্গে দেখা করে।’ ‘আমার ছেলে তো মারাই গেছে। আমার তো আর মিথ্যা বলার কিছু নেই। মিন্নি যে মঙ্গলবারও (হত্যার আগের দিন) আমাদের বাসায় গিয়েছিল তা আমার প্রতিবেশীরাও দেখেছে। শুধু হত্যাকাণ্ডের আগের দিন মঙ্গলবারই নয়; রিফাত শরীফের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার পরও মিন্নি নিয়মিত আমাদের বাসায় এসে নয়নের সঙ্গে দেখা করত। মোটরসাইকেলে মিন্নিকে রিফাত শরীফ কলেজে নামিয়ে দিয়ে চলে যেত। এরপর মিন্নি আমাদের বাসায় চলে আসত। আবার কলেজের ক্লাস শেষ হওয়ার আগ মুহূর্তে মিন্নি আমাদের বাসা থেকে বের হয়ে কলেজে যেত।’

রিফাত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মিন্নি জড়িত দাবি করে নয়নের মা শাহিদা বেগম বলেন, ‘রিফাতের সঙ্গে মিন্নির বিয়ের খবর পাওয়ার পর আমি আমার ছেলেকে অনেক নিষেধ করেছি, যোগাযোগ না রাখতে। কিন্তু আমার ছেলে নয়ন কখনও আমার কথা শুনত না। ওর মনে যা চাইতো ও তা-ই করত। নয়ন যদি আমার কথা শুনত তাহলে এমন নির্মম ঘটনা ঘটত না।’

এদিকে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেনকে ফোন করে মিন্নির সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মিন্নি অসুস্থ। তাকে ডাক্তার দেখানো হয়েছে। মিন্নি এখন ঘুমাচ্ছে। তাই মিন্নি কথা বলতে পারবে না।’ উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন বরগুনায় প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এঘটনায় নিয়ে দেশজুড়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠে। ইতিমধ্যে রিফাত হত্যার ঘটনায় জড়িত নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। [কার্টেসি : জাগোনিউজ]

ঢাকা, ১৩ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।