৭ দিনেও খোঁজ মেলেনি পথশিশু জিনিয়ার


Published: 2020-09-07 12:26:23 BdST, Updated: 2020-10-31 17:56:43 BdST

মো মনিরুজ্জামান, ঢাবিঃ জিনিয়া। ৯ বছর বয়সের এক অদম্য শিশু। টিএসসি এলাকায় ফুল বিক্রি করত এই ছোট্ট শিশুটি। তার হাতে থাকত বালতি ভর্তি লাল গোলাপ। মুখে থাকত হাসি। ক্যাম্পাসে, বিশেষ করে টিএসসিতে যাদের আনাগোনা, তারা এই মিষ্টি হাসির সাথে পরিচিত। বাবা নেই, ফুল বিক্রি করে মায়ের সংসারে যোগান দেন জিনিয়া। হাত বাড়িয়ে বলত- ‘আপু- ভাইয়া ফুলটা নেবেন, দশটা ট্যাহা দেন।’

মা শিমু, ছোট বোন সিনথিয়া (৭) আর ভাই পলাশের (১৭) সঙ্গে নিয়ে থাকেতেন টিএসসির খোলা আকাশের নিচে। সাতদিন ধরে তার কোনও খোঁজ নেই। কোথায় গেল মেয়েটা কেউ জানে না। ১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সর্বশেষ জিনিয়াকে ক্যাম্পাসে দেখা যায়। এরপর থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। ৯ বছরের ফুল বিক্রেতা শিশুটি জায়গা করে নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের মনে। তাইতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে জিনিয়ার খোঁজে ব্যাকুল সবাই।

জিনিয়া

 

জানা যায়, নিখোঁজের আগে জিনিয়াকে দেখা গেছে দুই তরুণীর সঙ্গে ফুচকা খেতে। এরপর শামসুন্নাহার হলের কাছে থাকা ‘সড়ক দুর্ঘটনা স্মৃতিস্থাপনা’র পাশে বসে গল্পও করে তারা।

প্রসঙ্গত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে ঘিরে রাখা হয়েছে কতগুলো সিসিটিভি ক্যামেরায়। ক্যাম্পাসে যে কেউ প্রবেশ বা বের হলে সিসিটিভি থেকে মুখ লুকানোর কেন সুযোগ নেই। তবে জিনিয়া নিখোঁজের আগ পর্যন্ত টিএসসি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান গেটের প্রায় সবগুলো সিসিটিভি ক্যামেরাই ছিল অকার্যকর।

জিনিয়ার মা শিমু বলছেন, ‘নিখোঁজ হওয়ার আগেও ওই দুই মহিলা জিনিয়াকে নিয়ে যেতে চেয়েছে। বলেছে তারা নাকি আমার মেয়েকে ভাল খাওয়াবে, ভাল পড়াবে। কিন্তু আমি দেই নাই। আমি বলেছি আমি ভিক্ষা করে আমার মেয়েকে খাওয়াব-পড়াব তারপরও আপনাদের সাথে দিব না।’

সাধারণ ডায়েরি

 

গত মঙ্গলবার রাতে নিখোঁজ হওয়ার পর জিনিয়ার মা শিমু শাহবাগ থানায় নিখোঁজের সাধারণ ডায়েরি করেছেন। নিখোঁজের দিন রাত সাড়ে নয়টার দিকে ছোট মেয়ে সিনথিয়াকে স্বোপার্জিত স্বাধীনতা ভাস্কর্যের পাশে রেখে জিনিয়াকে ডাকতে যান মা শিমু। দুই নারীর সঙ্গে জিনিয়া তখন ফুচকা খাচ্ছিল। তিনি জিনিয়াকে বৃষ্টি আসার আগে ফুল বিক্রি শেষ করার তাগাদা দেন।

তখন ওই দুই নারী তাকে বলেন, জিনিয়াকে ফুচকা খাওয়া শেষে ডাসের পেছনে দিয়ে আসবেন। এসময় কেউ একজন ডাক দেওয়ায় সেখান থেকে চলে আসেন শিমু। এরপর থেকে জিনিয়াকে আর পাওয়া যায়নি।

শাহাবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন-উর-রশিদ মুঠোফোনে জানায়, ‘জিনিয়া কাদের সঙ্গে মিশত, ঘুরত, ঘটনার দিন কি হয়েছে আমরা সব তথ্য পেয়েছি। জিনিয়াকে খুঁজে পেতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। সিসিটিভি ফুটেজগুলো বিশ্লেষন করছি। আমরা আশা করছি দ্রুত শিশুটিকে ফিরে পাব।'

ঢাকা, ০৭ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।