কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ, পরে ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি: গ্রেপ্তার ১


Published: 2020-10-13 19:07:45 BdST, Updated: 2020-11-28 19:38:05 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে এক কলেজছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের পর তার অশ্লীল ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে বিষ্ণু গোপাল মোহন্ত বাঁধন (১৯) নামের এক শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সোমবার গভীর রাতে পার্বতীপুর রেলওয়ে থানায় মামলা করেছেন নির্যাতিত মেয়েটির অভিভাবক।

পরে রাতেই অভিযুক্ত বাঁধনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তার বাঁধন দিনাজপুর এসআর পলিটেকনিক কলেজের ছাত্র। তিনি পৌর শহরের সাহেব পাড়া মহল্লার বিশ্বজিৎ কুমার মহন্ত মানিক মাষ্টারের ছেলে।

এদিকে ধর্ষণের শিকার ওই কলেজছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ৬ মাস আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে বাঁধনের সাথে পার্শ্ববর্তী মহল্লার এক কলেজছাত্রীর পরিচয় হয়। বাঁধন নিজ ধর্মের কথা গোপন রেখে মুসলিম ওই মেয়েটির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বাঁধন ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাবা মার অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী বাঁধনের ধর্ম পরিচয় জানতে পেরে তার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। কয়েক দিন আগে বাঁধন আবারও ওই ছাত্রীকে নিজ বাড়িতে আসার কথা বললে মেয়েটি তাতে সাড়া দেয়নি। এতে বাঁধন ক্ষিপ্ত হয়ে ওই মেয়ের সাথে আগের তোলা আপত্তিকর ছবি গত ৯ সেপ্টেম্বর ফেসবুকে ছেড়ে দেন। বিষয়টি মেয়েটির পরিবারের নজরে এলে তারা ওই ছাত্রের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

পার্বতীপুর রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক বলেন, রাতেই ধর্ষণ ও ডিজিটাল প্রযুক্তি আইনে বাঁধনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। মামলার সাথে সাথেই অভিযান চালিয়ে আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেই সংঙ্গে মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা, ১৩ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।