সিলেট উইমেন্স মেডিকেলে এওয়ার্ড বিতরণ


Published: 2017-11-09 22:04:03 BdST, Updated: 2017-11-19 05:34:53 BdST




সিলেট লাইভ: প্রখ্যাত শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ, হলি সিলেট হোল্ডিং লিমিটেডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. মো. এখলাসুর রহমান বলেছেন, শিক্ষার্থীদেরকে ভালো ডাক্তার হওয়ার আগে ভালো মানুষ হিসেবে নিজেদেরকে গড়ে তুলতে হবে।

মানবতার কল্যাণে মানবিক গুণাবলী অর্জন করে সমাজ ও দেশের কল্যাণে অবদান রাখতে হবে। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদেরকে আরো বেশি দায়িত্ববোধ সম্পন্ন হয়ে মানুষের সেবায় এগিয়ে আসলেই মেধা ও পরিশ্রমের যথাযোগ্য মর্যাদা রক্ষা হবে।

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ আয়োজিত দ্বিতীয়বারের মত সিলেটের প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. জমশেদ বক্ত মেমোরিয়াল এওয়ার্ড বিতরণ অনুষ্ঠান ২০১৭-এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. রেজাউল করীমের সভাপতিত্বে গতকাল বৃহস্পতিবার কলেজের লেকচার গ্যালারী-২ এ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. মো. ফজলুর রহীম কায়সারের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হলি সিলেট হোল্ডিং লিমিডেটের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. এম এ মতিন, ভাইস চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. শাহ আব্দুল আহাদ, সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক লে. কর্নেল (অব.) ডা. সৈয়দ আবতহী।

প্যাথোলজি বিভাগের লেকচারার ডা. তাজকিয়া সুলতানা বক্স’র সঞ্চালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন কলেজের স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার এন্ড কালচারাল কমিটির সভাপতি প্রফেসর ডা. মো. নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন একাডেমিক কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ডা. মৃগেন কুমার দাশ চৌধুরী, ফিজিওলজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. মো. মাসুদুল আলম। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কলেজের শিক্ষার্থী নওরীন এবং প্রয়াত ডা. জমশেদ বক্ত স্মরণে মোনাজাত পরিচালনা করেন ডা. ইসমাঈল পাটোয়ারী।

অনুষ্ঠানে অনুভূতি প্রকাশ করেন বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী বদরুন্নেসা, খাদিজা ইসলাম, ইয়াশুদা মিশরা ও তাসনিয়া তারাননুম তাওহা চৌধুরী। উল্লেখ্য, দ্বিতীয় বারের মত সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের ৪জন শিক্ষার্থীকে তাদের প্রফেশনাল পরীক্ষায় কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল অর্জন করার কারণে জমশেদ বক্ত মেমোরিয়াল এওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে বদরুন্নেসা, খাদিজা ইসলাম, ইয়াশুদা মিশরা ও তাসনিয়া তারাননুম তাওহা চৌধুরীকে তাদের প্রফেশনাল পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করায় প্রত্যেককে নগদ ৫০০০০ টাকা এবং সার্টিফিকেট তুলে দিয়ে সম্মানিত করা হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতি প্রফেসর ডা. রেজাউল করীম প্রয়াত ডা. জমশেদ বকতের সুযোগ্য সন্তান আমেরিকা প্রবাসী ডাক্তার সোয়েব বকতের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. রেজাউল করীম বলেন, মেডিকেল কলেজকে একটি আধুনিক ও মানসম্মত মেডিকেল হিসেবে গড়ে তুলতে হলে শিক্ষার্থীসহ শিক্ষক এবং সংশ্লিষ্ট সবাইকে এক সাথে কাজ করতে হবে।

সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করে সাধারণ মানুষের ভালোবাসা অর্জনের মাধ্যমেই নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করা সম্ভব।


ঢাকা, ০৯ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।