চবিতে পরীক্ষায় জালিয়াতি, ৬ বছর পর দুই শিক্ষকের শাস্তি!


Published: 2019-03-14 17:41:45 BdST, Updated: 2019-03-26 18:58:32 BdST

চবি লাইভ: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষায় জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত দুই শিক্ষকের শাস্তি দেয়া হয়েছে অভিযোগের ৬ বছর পর। তাদের একজনকে বহিষ্কার ও অপরজনকে পরীক্ষা সংক্রান্ত কাজ থেকে বিরত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

যদিও গত ছয় বছর ওই শিক্ষক দিব্যি পরীক্ষা সংক্রান্ত কাজ করেছেন। এদের মধ্যে প্রফেসর ড. সুপ্তিকণা মজুমদারকে বহিষ্কার করা হয় ও অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর শিপক কৃষ্ণ দেবনাথকে সতর্ক করার পাশাপাশি আগামী তিন বছরের জন্য পরীক্ষা সংক্রান্ত কার্যক্রম থেকে বিরত রাখার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

জানা গেছে, ২০১৩ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সংস্কৃত বিভাগের ৩য় বর্ষ (সম্মান) ৩০৮ নং কোর্সের পরীক্ষায় পর্যবেক্ষকের স্বাক্ষর ছাড়া পরীক্ষার্থীর মূল খাতায় যুক্ত করা হয় অতিরিক্ত উত্তরপত্র। পরীক্ষার হলের বাহিরেই কয়েকজন শিক্ষার্থীকে দেয়া হয় উত্তরপত্র লেখার সুযোগও।

একাজটি করেন সংস্কৃত বিভাগের প্রফেসর ড. সুপ্তিকণা মজুমদার ও এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর শিপক কৃষ্ণ দেবনাথ। এ ঘটনায় ড.সুপ্তিকণা মজুমদার ও শিপক কৃষ্ণ দেব নাথের বিরুদ্ধে পরীক্ষার কাজে অবহেলা, অনিয়ম, দুর্নীতি এবং পরীক্ষার খাতা জালিয়াতির অভিযোগ তুলে ভিসি বরাবর অভিযোগ করেন উক্ত বিভাগের তৎকালীন লেকচারার (বর্তমানে অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর) লিটন মিত্র। পরে তদন্তে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কেএম নূর আহমেদ ও ডেপুটি রেজিস্ট্রার শামসুল আলম স্বাক্ষরিত এক আদেশপত্রে ওই দুই শিক্ষকের বহিষ্কার ও পরীক্ষা কার্যক্রম থেকে বিরত রাখার বিষয়টি জানানো হয়।

 

ঢাকা, ১৪ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।