চুয়েট: বহি:র্বিশ্বের সাথে পাল্লা দিয়ে দেশের প্রকৌশলীরাও অবদান রাখছেন


Published: 2018-12-19 15:17:27 BdST, Updated: 2019-06-25 00:18:40 BdST

চুয়েট লাইভ: বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেছেন, বর্তমানে দেশে অসংখ্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজ চলছে। এসব কাজে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের ভূমিকা ও অবদান অপরিহার্য। আমাদের দেশের প্রকৌশলীরা ইতোমধ্যে তাদের সক্ষমতা দেখিয়েছে।

তবে বহি:র্বিশ্বের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের আবিষ্কার ও অগ্রগতির সাথে সঙ্গতি রেখে আমাদেরকেও এগিয়ে যেতে হবে। বিশেষ করে নির্মাণকাজ ও পদ্মা সেতুর মত মেগা প্রজেক্ট তৈরির ক্ষেত্রে খরচ কমানোর পাশাপাশি নির্মাণকাজ টেকসই করতে চ্যালেঞ্জগুলো নিয়ে কাজ করতে হবে।

ইউজিসি চেয়ারমান আরো বলেন, ঢাকায় বর্তমানে দুই কোটির বেশি মানুষ বসবাস করে। পৃথিবীর অনেক দেশে সমান সংখ্যক জনগণই নেই। এখানকার নাগরিকদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে কাজ করার সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের প্রচুর সুযোগ রয়েছে। কীভাবে সুষমভাবে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা যায়, সে বিষয়ে এ ধরণের আন্তর্জাতিক কনফারেন্স থেকে ফলপ্রসু কিছু সমাধান বেরিয়ে আসবে বলে আমি মনে করি।

ইউজিসি চেয়ারমান প্রফেসর আবদুল মান্নান বুধবার সকালে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) পুরকৌশল বিভাগের আয়োজনে ৪র্থ আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে এসব কথা বলেন।

পুরকৌশল খাতের অগ্রগতি শীর্ষক তিনদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক কনফারেন্স ‘আইসিএসিই-২০১৮’ (4th International Conference on Advances in Civil Engineering; ICACE-2018) এর অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ব হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান।

পুরকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং কনফারেন্স চেয়ার প্রফেসর ড. মো: মইনুল ইসলামের সভাপতিত্বে গেস্ট অব অনার ছিলেন চুয়েটের ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। পুরকৌশল বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর শ্যাম আচার্যের সঞ্চালনায় এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কনফারেন্স সেক্রোটারি এবং পুরকৌশল বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেস ড. মো: আফতাবুর রহমান।

এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন জাপানের প্রফেসর ড. তাকাশি মাতসুশিমা (Prof. Dr. Takashi Matsushima) এবং থাইল্যান্ডের প্রফেসর ড. পেনাং ওয়ারনিতেহাই (Prof. Dr. Pennung Warnitehai)। অনুষ্ঠানের শুরুতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারং এর বর্তমান অগ্রগতি বিষয়ে একটি ভিডিওচিত্র উপস্থাপন করেন পুরকৌশল বিভাগের লেকচারার অপু চন্দ্র দেবনাথ।

এসময় ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য আমাদের দেশে কাজের সুযোগ ও পরিধি বাড়ছে। বহি:র্বিশ্বের সাথে পাল্লা দিয়ে আমাদের প্রকৌশলীরাও অবদান রাখছেন। পদ্মাসেতুর মত মেগা প্রজেক্টে সেই সক্ষমতাই প্রতিফলিত হয়েছে।

এবারের কনফারেন্সে বাংলাদেশসহ ১০টি দেশের যন্ত্রকৌশল বিষয়ের অন্তত কয়েকশত শিক্ষক, গবেষক, বিজ্ঞানী, প্রফেশনাল এবং উদ্যোক্তাগণ অংশগ্রহণ করছেন। এতে পুরকৌশল সম্পর্কিত ৬ টি বিষয়ে মোট ২৩ টি সেশনে ১৮৭ টি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হচ্ছে। একইসঙ্গে চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা, পানি নিষ্কাশন, ভুমিকম্প, যোগাযোগ ও পরিবহণ ব্যবস্থা, টেকসই নির্মাণ প্রকৌশলসহ বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলো গুরুত্ব পাচ্ছে।

এদিকে আগামীকাল ২০ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নগরীর রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ’র মেজবান হলে কনফারেন্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন চুয়েটের ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। পুরো আয়োজনের পৃষ্ঠপোষকতায় থাকছে, কনফিডেন্স সিমেন্ট লিমিটেড এবং জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেড।

 


ঢাকা, ১৮ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।