নেশা করিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণের ভিডিও ফিয়ন্সের কাছে প্রেরণ!


Published: 2018-11-05 06:46:01 BdST, Updated: 2018-11-14 11:19:16 BdST

ফেনী লাইভ : নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয় ধর্ষণের ওই ভিডিও ক্লিপ তার ফিয়ন্সের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছে বখাটেরা। এঘটনা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে ফেনীর দাগনভূঞায়। এঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ দুই সহযোগিকে আটক করেছে।

জানা যায়, দাগনভূঞার দক্ষিণ আলীপুর গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে রবিন গত ২৫ অক্টোবর একই এলাকার সফি উল্যাহর ছেলে রুবেল ও জয়নাল আবেদীনের মেয়ে সুমি আক্তারের সহযোগীতায় ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। সুমি আক্তার ওই ছাত্রীকে তার বসত ঘরে ডেকে নিয়ে মিষ্টির সাথে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে দেয়। পরে ওই ছাত্রীকে বখাটে রবিন বাগানে নিয়ে অচেতন অবস্থায় একাধিকবার ধর্ষণ করে। এদিকে ওই ছাত্রীর সঙ্গে এক প্রবাসীর আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়। এ অবস্থায় বিয়ে ঠেকাতে ধর্ষনের ভিডিওচিত্র প্রবাসী ফিয়ন্সের কাছে পাঠিয়ে দেয় বখাটেরা। ভিডিও ক্লিপ দেখে ওই প্রবাসী ভিকটিম ছাত্রীকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মাবাদী হয়ে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যালে ৩ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। আালত মামলাটি আমলে নিয়ে দাগনভূঞা থানার ওসিকে এফআইআর করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ নে।

দাগনভূঞা থানার ওসি মো: ছালেহ আহামদ পাঠান জানান, এজহারভুক্ত আসামী রুবেল ও সুমি আক্তারকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। মূল আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ঢাকা, ০৫ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।