স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে...


Published: 2018-05-25 15:29:32 BdST, Updated: 2018-10-20 19:40:22 BdST

ফেনী লাইভ: ফেনীর পরশুরাম উপজেলার বক্সমাহমুদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু বক্কর ছিদ্দিকের (৪০) বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, অভিযুক্ত ওই শিক্ষক একই ইউনিয়নের মুহাম্মদপুর গ্রামের কাজী মিয়ার ছেলে। তিনি ২০০১ সালে চাকুরীতে যোগদান করেন।

ভিক্টিমের পরিবার থেকে জানা যায়, রিতা (ছদ্ম নাম) ওই স্কুলের শিক্ষক ছিদ্দিকের কাছে প্রাইভেট পড়তো। কয়েকদিন আগে সকালে ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে গেলে শিক্ষক তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শ কাতর স্থানে হাত দেয়, পরে জোর পুর্বক ধর্ষন চেষ্টা করেন।

এ বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার (১৭ মে) স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নিকট লিখিত অভিযোগ দাখিল করে ভুক্তভুগির পরিবার। কিন্তু সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও তিনি কোন ব্যবস্থা না নিয়ে বিষয়টি ধামা চাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।

ঘটনার বিষয়ে ভুক্তভুগি ৫ম শ্রেনীর ওই ছাত্রী শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলে, গত বৃহস্পতিবার সকালে স্কুলে প্রাইভেট পড়তে যান, এই সময় তার স্যার তাকে জোর পুর্বক শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে বিভিন্ন অশ্লীল কথা বলতে থাকে। এক পর্যায়ে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ওই সময় ছাত্রীটি চিৎকার শুরু করলে শিক্ষক তাকে ছেড়ে দেয়। এর পর সে তার বাড়ী ফিরে বিষয়টি অভিভাবককে জানান।

বক্সমাহমুদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর মুহাম্মদ অভিযোগের বিষয়ে বলেন, তিনি এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। অভিযুক্ত শিক্ষককে বদলী করার কার্যক্রম চলছে।

স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি নুরুল আলম কালাচান ধর্ষণ চেষ্টার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ওই ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাত দিয়েছিল তবে ধর্ষণ চেষ্টার কোন ঘটনা ঘটেনি। তাই মিমাংসা করে দেয়া হয়েছে এবং ছিদ্দিককে (সাময়িক) উপজেলার নিজকালিকাপুর স্কুলে বদলী করা হয়েছে।

ঘটনার বিষয়টি উপজেলা (ভারপ্রাপ্ত) প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মিজানুর রহমান ক্যাম্পাসলাইভকে জানান, বিষয়টি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদেরকে জানানো হয়েছে।

অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের কাছে অভিযোগের বিষয়ে জানতে একাধীকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।

 

ঢাকা, ২৫ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।