এইচএসসিতে জিপিএ-৫, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুর প্রাণ গেল সড়কে


Published: 2018-09-15 01:44:12 BdST, Updated: 2018-09-23 19:02:12 BdST

ভোলা লাইভ : এইচএসসিতে এ বছর বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন আদিত্য দে শান্ত। আর কদিন বাদেই তিনি ভর্তি হতে বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেভাবেই প্রস্তুতি চলছিল তার। ইচ্ছা ছিল উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার। বাবা মারা যাওয়ার পর একমাত্র ছেলেকে নিয়েই স্বপ্ন দেখছিলেন মা। তার সেই স্বপ্ন থেমে গেছে। নিভে গেছে একমাত্র ছেলে শান্তর জীবন প্রদীপ। একটি দুর্ঘটনায় সবকিছু এলোমেলো হয়ে গেছে। শান্তর পরিবারে এখন কেবল শোকের মাতম।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন শান্ত। এর আগে তিনি ওই মেডিকেলের আইসিইউতে ছিলেন ২৩ দিন। ভোলার পৌর এলাকার প্রয়াত ইউপি সচিব গোপাল দের একমাত্র ছেলে ছিলেন শান্ত। তিনি এ বছর বরিশাল কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন।

গত ঈদের দিন ( ২২ আগষ্ট) ৩ বন্ধুসহ মটর সাইকেল যোগে চরফ্যাশন উপজেলায় জ্যাকব ওয়াচ টাওয়ার দেখতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পড়েন শান্ত। পথে লালমোহন উপজেলা অতিক্রমের সময় একটি ইঞ্জিন চালিত ইজিবাইক (বোরক) সোজা তাদের গায়ের ওপর ওঠে যায়। সাইড দিতে গিয়ে পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পান শান্ত।

প্রথমে লালমোহন হাসপাতাল, পরে ভোলা হয়ে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয় শান্তকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান শান্ত। শুক্রবার দুপুরে শান্তর লাশ ভোলায় পৌঁছলে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন মা। স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে এলাকা।
এই ছাত্রটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আগেই তার স্বপ্ন নাশ করে দিয়ে গেছে সড়ক দুর্ঘটনা। আমরা এমনটি আর দেখতে চাই না।

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।