৫৫ বছরে প্রথমবার একজন নারী, প্রফেসর ডোনা স্ট্রিকল্যান...


Published: 2018-10-02 21:47:54 BdST, Updated: 2018-12-11 02:29:45 BdST

লাইভ ডেস্ক: আবারও প্রমান করলো নারীরা পিছিয়ে নেই। মেধা, যোগ্যতা, মন ও মননে তারাও পুরুষের চেয়ে কম নয়। তারাও পারে। নিজের যোগ্যতা আর কঠোর পরিশ্রম এনে দিয়েছে এই সম্মান, এই গর্ব । এমনটি সত্যি প্রমান করলেন পদার্থবিজ্ঞানী ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড। তিনি কানাডার একজন নারী।

জানা যায় প্রথম বার ১৯০৩ সালে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পান মেরি কুরি নামের একজন নারী। এরপর ১৯৬৩ সালে একই বিভাগে নোবেল পেয়েছিলেন মারিয়া মায়ার। চলতি বছর ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড অর্জন করলেন এ বিরল সম্মান। দীর্ঘ ৫৫ বছরের মধ্যে এ প্রথম কোনো নারী পদার্থবিজ্ঞানী নোবেল পুরস্কার অর্জন করলেন। কুড়ালেন সম্মান।

ওই গর্বিত ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড কানাডার বিজ্ঞানী। তবে ডোনা একা না, তাঁর সঙ্গে নোবেল জিতেছেন মার্কিন বিজ্ঞানী আর্থার আসকিন এবং ফ্রান্সের জেরার্ড মোরো। বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে।

ওয়াটারলু বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড, যিনি বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের জন্য আলোর সংক্ষিপ্ত কিন্তু তীব্র ডাল উত্পাদনকারী লেজারগুলির উন্নয়নে সহায়তা করেছিলেন, পদার্থবিজ্ঞানের এই বছরের নোবেল পুরস্কার বিজয়ী হয়েছেন।

মঙ্গলবার সুইডিশ রয়াল অ্যাকাডেমি অব সায়েন্স ৯০ লাখ ক্রোনার (১০ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার) অর্থমূল্যের এ পুরস্কার ঘোষণা করে। পুরস্কারের মোট অর্থের অর্ধেক পাবেন মার্কিন বিজ্ঞানী আর্থার আসকিন এবং বাকি অর্থ ভাগাভাগি করে নেবেন ফ্রান্সের জেরার্ড মোরো ও কানাডার ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড।

সুইডিশ রয়াল অ্যাকাডেমি জানায়, আর্থার আসকিন ‘অপটিক্যাল টুইজারের’ (চিমটা) উন্নয়ন করেছেন, যা ভাইরাসের মতো অতিক্ষুদ্র কণার কোনো ক্ষতি না করেই সেগুলোকে আঁকড়ে ধরতে পারে। অন্যদিকে জেরার্ড মোরো এবং ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড খাটো ও তীব্র লেজার পালস উন্নয়নে সাহায্য করেছেন, যা শিল্প কারখানা ও চিকিৎসা ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হচ্ছে।

আরও জানা যায় ১৯০৩ সালে প্রথম নারী হিসেবে মেরি কুরি পদার্থ বিজ্ঞানে পুরস্কার জয়ের পর এই ক্ষেত্রে ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড হলেন মাত্র তৃতীয় নারী। গতকাল সোমবার চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল বিজয়ীদের নাম প্রকাশ করার মধ্য দিয়ে ২০১৮ সালের নোবেল পুরস্কার ঘোষণা শুরু হয়।

সংশ্লিস্টরা আরও জানান, বুধবার রসায়নে এবং শুক্রবার শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের ঘোষণা দেয়া হবে। আর অর্থনীতির পুরস্কার ঘোষণা করা হবে ৮ অক্টোবর। বিতর্কের কারণে চলতি বছর সাহিত্যে কোনো পুরস্কার ঘোষণা করা হবে না।

প্রসঙ্গত, ১৯০৫ সালে নোবেল পুরস্কার প্রদান শুরু হয়। তারও আগে ১৮৯৫ সালের নভেম্বর মাসে আলফ্রেড নোবেল তার মোট উপার্জনের ৯৪ শতাংশ (তিন কোটি সুইডিশ ক্রোনার) অর্থ দিয়ে উইলের মাধ্যমে নোবেল পুরস্কার প্রবর্তন করেন।

সেই বিপুল অর্থ দিয়েই শুরু হয় পদার্থ, রসায়ন, চিকিৎসা, সাহিত্য ও শান্তিতে নোবেল পুরস্কার প্রদান। পরে ১৯৬৮ সালে তালিকায় যুক্ত হয় অর্থনীতি। এই তালিকা আরও লম্বা হতে পারে বলেও অনেকেই আভাস দিয়েছেন।

 

ঢাকা, ০২ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।