ফ্রি ওয়াই-ফাই: ফাঁদও হতে পারে...


Published: 2019-12-01 20:34:32 BdST, Updated: 2019-12-06 06:35:58 BdST

আইটি লাইভঃ ওয়াই-ফাই। এখনও এদেশে একটি লোভনীয় নাম। আজকাল বাসস্ট্যান্ডে, রেস্টুরেন্টে এবং বিভিন্ন পাবলিক প্লেসে ফ্রি ওয়াই-ফাই পাওয়া যায়। ফ্রি ওয়াই-ফাই ব্যবহারের আগে জেনে নিতে হয় কিছু বিষয়।

♦ ফ্রি ওয়াই-ফাই অনেক সময় ফাঁদও হতে পারে। তাই ফ্রি ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কে যুক্ত হয়ে কখনোই অনলাইন ব্যাংকিং, ডেবিট কিংবা ক্রেডিট কার্ড নম্বর ব্যবহার করে কোনো অনলাইন ট্র্যানজেকশন করবে না।

♦ ভিপিএন বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক ব্যবহার করবে। এর সাহায্যে আলাদা আইপি অ্যাড্রেসের মাধ্যমে ওয়েবসাইট ভিজিট করা যায়। ফলে ফ্রি ওয়াই-ফাইয়ের পাবলিক আইপি অ্যাড্রেস দরকার হবে না। এটা ব্যক্তিগত তথ্যকেও নিরাপদ রাখবে।

♦ মোবাইল ডিভাইস এবং কম্পিউটার অনেক সময় তাদের সঙ্গে সংযুক্ত ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের নাম সংরক্ষণ করে রাখে এবং পরবর্তী সময়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেগুলোর সঙ্গে যুক্ত হয়। এই কাজটি করা ঠিক না।

কারণ, দুষ্কৃতকারীরা অনেক সময় ফ্রি ওয়াই-ফাই হটস্পটের নাম নকল করে তোমার ডিভাইসের সঙ্গে অটো-কানেক্টেড হতে পারে এবং নিজস্ব এক্সেস পয়েন্টের মাধ্যমে ব্যক্তিগত তথ্য নিয়ে নিতে পারে।

♦ অনেক সময় জনপ্রিয় কোনো ফ্রি ওয়াই-ফাই হটস্পটের আশপাশে দুর্বৃত্তরা কাছাকাছি নামের অন্য কোনো ফ্রি ওয়াই-ফাই হটস্পট খুলে ফাঁদ পাতে। তাই এই ফাঁদ থেকে বাঁচতে নেটওয়ার্কে যুক্ত হওয়ার আগে এর নাম সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে।

♦ কিছু কিছু ফ্রি ওয়াই-ফাই হটস্পটে যুক্ত হতে হলে ফোন নম্বর দিতে হয় এবং এরপর এসএমএসের মাধ্যমে ফোনে একটি পাসওয়ার্ড/কোড আসে, যেটা দিয়ে নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে হয়। এ রকম নেটওয়ার্ক অপেক্ষাকৃত নিরাপদ।

♦ মোবাইল ফোনে অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার করতে হবে। তাহলে অনিরাপদ নেটওয়ার্কে ঢোকার আগে সেটা সতর্ক করবে।

♦ ইন্টারনেট ব্যবহার না করলে ফোনের ওয়াই-ফাই বন্ধ করে রাখা ভাল। এতে ব্যাটারি চার্জ বাঁচবে। এ ছাড়া প্রতারণামূলক অটোকানেক্ট নেটওয়ার্কের হাত থেকেও রেহাই মিলবে।

ঢাকা, ০১ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।