"অ্যাপল ও স্যামসাং এর স্মার্টফোনে ক্যান্সারের ঝুঁকি!"


Published: 2019-09-22 22:11:27 BdST, Updated: 2019-10-23 16:41:28 BdST

আইটি লাইভঃ সমস্যা দিন দিন বাড়ছেই। বিপদ আসছে ধেয়ে। বাঁচার উপায় একবারেই কম। তবুও বেঁচে থাকার স্বপ্ন সকলেরই আছে। হ্যাঁ বলছি মোবাইল নিয়ে কিছু কথা। মাত্রাতিরিক্ত রেডিয়েশনের কারণে ক্যান্সার ঝুঁকির আশঙ্কা রয়েছে বিশ্বের শীর্ষ দুই মোবাইল ফোন জায়ান্ট কোম্পানি স্যামসাং এবং অ্যাপলের কয়েকটি স্মার্টফোনে।

অ্যাপলের আইফোন এক্সসহ বিভিন্ন মডেলের আইফোন এবং স্যামসাংয়ের সাম্প্রতিক গ্যালাক্সি মডেলের ফোনগুলোতে এমন ঝুঁকি পাওয়া গেছে। সংবাদমাধ্যম মাশাবেল ডটকম এক প্রতিবেদনে জানায়, ফোনগুলো ফেডারেল কমিউনিকেশনস কমিশনের বেধে দেওয়া সীমার বেশি মাত্রায় রেডিয়েশন ছড়াচ্ছে।

পরীক্ষায় আইফোন ৭, আইফোন ৮, ও গ্যালাক্সি এস ৮- এ এই ঝুঁকির প্রমাণ মিলেছে।
অভিযোগে মাত্রাতিরিক্ত রেডিয়শনের কারণে ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ার পাশাপাশি বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত ঝুঁকির কথা এতে উল্লেখ করা হয়েছে।

নির্ধারিত হারের চেয়ে বেশি মাত্রায় ক্ষতিকর রেডিয়েশন নির্গত হওয়ায় ক্যান্সারসহ বেশকিছু স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এমন অভিযোগ এনে দক্ষিণ কোরিয় ও মার্কিন এ দুই কোম্পানির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রান্সিসকো শহরের ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে এ মামলা করেন স্যামসাং এবং অ্যাপলের কয়েকজন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী। সানফ্রান্সিসকোর নর্দান ডিস্ট্রিক্ট অব ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে দায়েরকৃত মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে অতিরিক্ত পরিমাণে ক্ষতিকর রেডিয়েশন নির্গত করছে অ্যাপল এবং স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন।

ব্যবহারকারীরা এ মাত্রা সম্পর্কে জানলে তারা এ দুই কোম্পানির ফোন ব্যবহার করতেন না। মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, বৈদ্যুতিক তরঙ্গ স্থানান্তরের মাধ্যমে অতিরিক্ত রেডিয়েশন নির্গমন করছে স্যামসাং এবং অ্যাপলের স্মার্টফোন।

ফলে ফোন ব্যবহারকারীদের মাঝে ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। এছাড়া কোষে অতিরিক্ত চাপ তৈরি এবং প্রজনন স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পরে বলেও তথ্য মিলেছে। তাই এখন থেকেই সাবধান হওয়া উচিত।

ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।