বাংলাদেশেও প্রণয়ন করা হচ্ছে মেধাশ্রম আইন


Published: 2019-04-06 20:54:23 BdST, Updated: 2019-07-20 11:59:59 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: তথ্য প্রযুক্তিবিদ কমীদের শ্রমের উপর নির্ভর করছে আজকে এই ডিজিটাল বাংলাদেশ। তথ্য প্রযুক্তি খাতে ‘মেধাশ্রম’ ব্যবস্থাপনায় কোনো আইন নেই বাংলাদেশে। তাই এবার তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের জন্য ‘মেধাশ্রম আইন’ পাশ করতে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

জানা গেছে, বাংলাদেশ মেধাশ্রম আইন প্রণয়নে খসড়া তৈরির জন্য সম্প্রতি শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (শ্রম) রেজাউল হককে আহ্বায়ক করে ১৩ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটিকে আগামী ছয় মাসের মধ্যে প্রস্তাবিত আইনের একটি খসড়া শ্রম সচিবের কাছে দাখিল করতে হবে।

অতিরিক্ত সচিব (শ্রম) রেজাউল হক জানান, মেধাশ্রম আইন প্রণয়ন করা হলে যারা মেধা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে, তাদের অধিকার রক্ষা পাবে। তাদের তো আমাদের একটা জায়গায় নিয়ে যেতে হবে। সেজন্যই মেধাশ্রম আইন করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘আগামী দু-এক সপ্তাহের মধ্যে কমিটির প্রথম সভা আহ্বান করা হচ্ছে। এরপর আমরা মেধাশ্রমের সঙ্গে আর কারা সংশ্লিষ্ট, তাদের খুঁজে বের করে মতামত নেব। আইটি বিশেষজ্ঞদেরও পরামর্শ নেব। আমরা কাজটা শুরু করতে চাই। ‘কায়িক শ্রমের ক্ষেত্রে শ্রমঘণ্টা, মজুরি, ছুটিসহ অন্যান্য যে বিষয়গুলো রয়েছে, সেগুলো মেধাশ্রমের প্রেক্ষাপটে কী হবে, তা নতুন আইনে তুলে ধরা হবে।’

এবিষয়ে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ‘মেধাশ্রম আইন না থাকায় জিপি (গ্রামীণফোন) আইটিতে সেখানে বেশকিছু সমস্যা হয়েছিল। সেখানে দাবি-দাওয়া নিয়ে কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ ছিল।

এসময় তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় কথা হলো, বিদেশ থেকে নলেজ ট্রান্সফার হচ্ছিল, সেটা তো আর হলো না। ওটা ছিল আইটি ইন্ডাস্ট্রির জন্য খারাপ একটি উদাহরণ। আমার দৃঢ় বিশ্বাস আইন থাকলে এ ডিসপিউটটা (দ্বন্দ্ব) হতো না।’

‘মেধাশ্রম আইন হলে কর্মীরা অনেক ধরনের অধিকার পাবে’ জানিয়ে আলমাস কবীর বলেন, আইন করার উদ্যোগটা অত্যন্ত ভালো। এটা দ্রুত করে ফেলা দরকার। কাজের সময়, কতটুকু সময় হলে পার্ট টাইম, কতটুকু হলে ফুল টাইম বলা হবে, ছুটি- এসব বিষয় সুস্পষ্টভাবে আইনে থাকতে হবে।’

 

ঢাকা, ০৬ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।