রোবটিক্স প্রযুক্তি নিয়ে জাপান-বাংলাদেশের গবেষনা


Published: 2018-06-25 16:56:11 BdST, Updated: 2018-11-14 04:54:04 BdST

আইটি লাইভ: বর্তমান বিশ্বের তথ্য প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়ে চলতে তরুণ তরুণীদের যথাযথভাবে একজন দক্ষ টেক হিসেবে গড়ে তুলতে গঠন করা হয়েছে জাপান বাংলাদেশ রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তি গবেষনা কেন্দ্র। বাংলাদেশের তরুণ তরুণীদের রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তিতে স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রতিষ্টানটি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি।

ফলে বাংলাদেশ একদিন বিশ্বের কাছে রোবটিক্স ও আধুনিক সম্ভাবনাময় দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে। যেমন: কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা, মেশিন লার্নিং আইওটি, প্রভৃতিতে সম্ভাবনাময় ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন অনেকটা এগিয়ে যাবে।

প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরহান ফেরদৌস ক্যাম্পাসলাইভেকে জানিয়েছেন, জাপান বাংলাদেশ রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তি গবেষনা কেন্দ্রের কার্যক্রম চলছে বিশ্বের প্রতিযোগিতা দিয়ে। সংগঠনটির লক্ষ ও উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য প্রতিটি সদস্যই কাজ করে যাচ্ছে নিরলসভাবে। আধুনিক বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে সংগঠনটির অর্জন চখে পরার মতো। কাজের পরিকল্পনা ও ডিজিটান বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষে আমরা এক যুগে কাজ করে যাচ্ছি।

প্রতিষ্ঠানটির গঠনতন্ত্র সম্পর্কে প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরহান ফেরদৌস ক্যাম্পাসলাইভকে জানন, জাপান বাংলাদেশ রোবটিক্স এন্ড এডভান্স টেকনোলজি রিসার্চ সেন্টার (জেবিআরএটিআরস) গঠিত হয়েছে দেশ বিদেশের প্রফেসর, গবেষক, ছাত্র-ছাত্রী , তরুণ-তরুণীদের নিয়ে। প্রতিষ্ঠানটি শুধুমাত্র রোবটিক্স নয়, বিশ্বের অন্যান্য আধুনিক টেকনোলজি যেমন: কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা, মেশিন লার্নিং আইওটিতে শিক্ষা নিয়ে শিক্ষা গবেষণা উন্নয়ন বাস্তবায়নে নিজ উদ্দ্যেগে কাজ করে যাচ্ছে।

যেখানে বাংলাদেশ, জাপান, কোরিয়া, আমেরিকা, ভারত ,কানাডা প্রভৃতি দেশ থেকে দেশী বিদেশী আন্তর্জাতিক গবেষকগণ ও মেধাবী ছাত্র ছাত্রীগন অংশগ্রহণ করেছেন।

জাপান বাংলাদেশ রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তি গবেষনা কেন্দ্রের লক্ষ্য সম্পর্কে তিনি জানান, বাংলাদেশ, জাপান, কোরিয়া, আমেরিকা, ভারত, কানাডা প্রভৃতি দেশের প্রফেসর, গবেষক, ছাত্র-ছাত্রী, তরুণ-তরুণীদের আন্তর্জাতিক ও দেশীয় পর্যায়ে রোবটিক্স ও আধুনিক টেকনোলজির শিক্ষার ছোয়া যেন সবার কাছে পৌছায় সেই লক্ষ্যে বিভিন্ন স্কুল-কলেজ , বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে সেমিনার, ওয়ার্কশপ এর মাধ্যমে দক্ষ আধুনিক প্রযুক্তিবিদ গড়ে তোলা।

এর ফলে বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণাও কাজের সৃষ্টি হবে। রোবটিক্স ও আধুনিক টেকনোলজির শিক্ষা সম্পর্কে আগ্রহীদের সমন্বয়ে বিভিন্ন দল গঠন করা ও একে অন্য কে সাহায্য করে যাচ্ছে। বাংলাদেশও একদিন উন্নতদেশ জাপান, কোরিয়া, আমেরিকা, ভারত, কানাডা প্রভৃতি দেশের কাতারে স্থান করে নেওয়া। দেশে বিদেশে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করে রোবটিক্স এবং বিশ্বের আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে জানানো।

তরুণ-তরুণী ও ছাত্র-ছাত্রী দের এ নিয়ে আগ্রহ সৃষ্টি করাই আমাদের একমাত্র লক্ষ। দেশে ও বিদেশে সরকারী ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় ল্যাব ও এই সম্পর্কে কাজের পরিবেশ গড়ে তোলাসহ ই-টেক অনলাইন স্কুল প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সংগঠনটি।

যার ফলে সকল পর্যায়ের ছাত্রছাত্রী, তরুণ গবেষকরা রোবটিক্স ও আধুনিক টেকনোলজি নিয়ে জানবে গবেষনা করবে এবং তা বাস্তব জীবনে কাজে লাগাতে পারবে। বাংলাদশের বিভিন্ন গবেষণা দলের সাহায্য করা, যার মাধ্যমে উন্নত রোবট এবং তা আরও কিভাবে দক্ষতার সাথে কাজ করা যায় তাই উদ্ভাবন করা।

কাজের পরিকল্পনা বিষয়ে তিনি জানান, বাংলাদেশে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে জাপান বাংলাদেশ রোবটিক্স এন্ড এডভান্স টেকনোলজি রিসার্চ সেন্টারের উদ্যোগে রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে আগস্ট থেকে অক্টোবর ২০১৮ এর মধ্যে সেমিনার ও ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হবে।

যাদের মধ্যে অন্যতম নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভারসিটি, আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়া ও দেশের বিভিন্ন স্কুল কলেজ যেমন: কুমিল্লা ফেনী নারায়ণগঞ্জ যশোর সহ বিভিন্ন প্রান্তে রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে সেমিনার ও ওয়ার্কশপ এর আয়োজন করা হয়েছে।

আগামী অক্টোবর মাসে বিইউবিটিতে জাতীয় রোবো ফেস্টের আয়োজন করার আশা করা হচ্ছে এর দ্বারা তরুণ-তরুণী ও ছাত্র-ছাত্রীরা আগ্রহী হবে এবং জ্ঞান বারবে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশকে তথ্য প্রযুক্তি ও গবেষণা সম্পর্কে পরিচিতি লাভ করার জন্য প্রতিষ্ঠানটির উদ্যোগে দেশে-বিদেশে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করছে।

যার অংশ হিসেবে ২০১৯ সালের জানুয়ারী মাসে ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভারসিটিতে কম্পিউটার ডিপার্টমেন্ট এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত হবে আন্তর্জাতিক সম্মেলন এবং বাংলাদেশে প্রথম আন্তর্জাতিক রোবফেস্ট প্রতিযোগিতা (International Conference on advance in Science Engineering & Robotics Technology, ICASERT) যার বিস্তারিত পাওয়া যাবে এই ওয়েভ ঠিকানায় (www.icasert.com), দেশ বিদেশের প্রফেসর, গবেষক, ছাত্র-ছাত্রী, তরুণ-তরুণীরা তাদের উদ্ভাবন, কাজ, গবেষণা নিয়ে উপস্থিত হবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

টিমের সদস্যরা হলেন, প্রতিষ্ঠানটিতে দেশে-বিদেশ থেকে বিভিন্ন পর্যায়ের প্রফেসর, গবেষক, ছাত্র-ছাত্রী, মেধাবী তরুণ-তরুণীরা কাজ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান এবং প্রতিষ্ঠাতা ইঞ্জিনিয়ার ফারহান ফেরদৌস যিনি জাপানেরোবটিক্স এবং কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে গবেষনা করছেন।

অন্যান্য সদস্য হলেন, প্রধান উপদেষ্টা প্রফেসর ড: রাশেদ মজুমদার, ফাহমিদা হক (সিইও), ড: আহমেদ ওয়াসিফ রেজা (চেয়ারম্যান সিএসই, ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভারসিটি), উপদেষ্টা মো: নুর হোসাইন (কানাডা), ড: সাজ্জাদ হোসেন (ইলেকট্রিক্যাল এন্ড সিএসই চেয়ারম্যান,নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি), প্রফেসর শামীম কায়সার (জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়), প্রফেসর ড: বিজেন্দর কুমার সোলাকি (ভারত), প্রফেসর বিসওয়ানথ বিজালোয়ান(ভারত), তুইয়েন নুইয়েন (জাপান), প্রফেসর ড: বিযয়ভাস্কর সেভাল (ভারত), ড: শহীদুজ্জামান সোহেল (জাপান), ফাহিম মাহমুদ (আমেরিকা), আব্দুল্লাহ আল মামুন (আমেরিকা), জাকারিয়া হোসেন (জাপান), ড: দেলোয়ার হোসেন (জাপান), টিপুসুলতান (দক্ষিন কোরিয়া), জুবায়ের আল বিল্লাল খান (বাংলাদেশ), রাসেল রানা (বাংলাদেশ), আবদুল্লাহ আল আহসান (বাংলাদেশ), ড: ইহসানুল হক (প্রফেসর,এআইইউবি, বাংলাদেশ), মো: নাবিল সাদ (ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ার)।

টেকনিক্যাল টিম ও অন্যান্য সদস্যরা হলেন, আহসানুল আকিব (টেকনিক্যাল ডিরেক্টর), ডেনিয়েল ইসলাম (ডেপুটি টেকনিক্যাল ডিরেক্টর) জুবায়ের হোসেন মুন্না (অ্যাসিস্ট্যান্ট টেকনিক্যাল ডিরেক্টর), জাহিদুল ইসলাম রাহাত (অ্যাসিস্ট্যান্ট টেকনিক্যাল প্ল্যানিং ডিরেক্টর), মো: শৈবাল (STE), এমদাদুল হোসাইন (সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার), ফারদিন আহমেদ (STE), মো: তাহমিদুর রহমান (প্রচার সম্পাদক), মালিহা তাবাসুম (এআইইউবি প্রতিনিধি), কামাল শাহরিয়ার (সময় টিভি), শাহ ইমরান (সিইও, রেডিও মাতৃকা), তাসফিয়া ইসলাম (কুমিল্লা প্রতিনিধি), শেখ-শাদী আল শাকিল(CCN প্রতিনিধি), আল আফসানা (WUB,প্রতিনিধি)

স্বপ্নবাস্তবায়ন ও সহযোগিতা বিষয়ে চেয়ারম্যান বলেন, আমি মনে করি বাংলাদেশ এর ছাত্রছাত্রীরা অনেক মেধাবী এবং আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও শিখতে আগ্রহী। আমাদের টিমের বিভিন্ন সদস্যরা দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ভাবে বিভিন্ন পুরুস্কার ও সম্মান পেয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম অর্জন ফাহমিদা হকের ওমেন হ্যাকাথনে চ্যম্পিয়ন, আহসানুল আকিবের NRF ড্রোন প্রতিযোগিতায় চ্যম্পিয়ন, জুবায়ের হোসেন মুন্নার ওমেন সেপটি নিয়ে বুয়েটে চ্যম্পিয়ন , জাহিদুল ইসলাম রাহাতের অটোনোমাস রোবট নিয়ে স্কিল কম্পিটিশন এ চ্যম্পিয়ন , দিলরুবা দিনার নাসা স্পেস এপস, ইউক্রেনের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ।

এছাড়া প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান, উপদেষ্টা সহ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশ এর সুনাম ও সম্মান বৃদ্বয়ী করছে, আমাদের বিভিন্ন প্রকল্প গুলো বাস্তবায়নে সরকারী ও বেসরকারি সাহায্য সহযোগিতা প্রয়োজন।

এছাড়া ও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক রোবফেস্ট, সম্মেলন আয়োজনে আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা প্রয়োজন। আমরা মনেকরি যদি আমাদের কার্যক্রমগুলো এগিয়ে নিতে পারি তাহলে বাংলাদেশকে রোবটিক্স ও আধুনিক প্রযুক্তিতে সত্যিকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা ভূমিকা রাখতে পারব এবং স্বপ্নগুলো পূরণ হবে।


ঢাকা, ২৫ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।